পুঁজিবাজার

মূল্য সংবেদনশীল তথ্য ছাড়াই দর বাড়ছে দুই কোম্পানির

নিজস্ব প্রতিবেদক: শেয়ারদর বাড়ার পেছনে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই তালিকাভুক্ত ন্যাশনাল টিউবস লিমিটেড ও জেমিনি সি ফুড লিমিটেডের। সম্প্রতি অস্বাভাবিক দর বাড়ার কারণ জানতে চাইলে কোম্পানিগুলো এমন তথ্য জানায়। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।
ন্যাশনাল টিউবস: গত ৯ সেপ্টেম্বর শেয়ারদর ছিল ১৩৮ টাকা ৯০ পয়সা, যা ১২ সেপ্টেম্বরে হয় ১৬৭ টাকা ৯০ পয়সা। এ হিসেবে দুই কার্যদিবসে দর বেড়েছে ২৯ টাকা। আর এই দর বাড়াকে অস্বাভাবিক মনে করছে ডিএসই।
এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে কোম্পানিটির শেয়ারদর দুই দশমিক ৩৮ শতাংশ বা চার টাকা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ১৭১ টাকা ৯০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ছিল ৩২ কোটি ২৬ লাখ তিন হাজার টাকা। শেয়ারটির সমাপনী দর দাঁড়িয়েছে ১৭০ টাকা ২০ পয়সায়। ওইদিন কোম্পানিটির শেয়ারদর সর্বনিম্ন ১৫৯ টাকা ৭০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ১৭২ টাকায় হাতবদল হয়। আর গত এক বছরে শেয়ারটির দর ৯৮ টাকা ৩০ পয়সা থেকে ১৭২ টাকায় ওঠানামা করে।
জেমিনি সি ফুড লিমিটেড: চলতি মাসের আট তারিখে শেয়ারদর ছিল ২৬৩ টাকা, যা গত ১২ তারিখে লেনদেন হয় ৩১৪ টাকা ৫০ পয়সায়। তিন কার্যদিবসে দর বেড়েছে ৫১ টাকা ৫০ পয়সা। আর এই দর বাড়াকে অস্বাভাবিক মনে করছে ডিএসই।
এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে কোম্পানিটির শেয়ারদর আট দশমিক ৭৪ শতাংশ বা ২৭ টাকা ৫০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ২৮৭ টাকায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ২৮৭ টাকা ৬০ পয়সা। দিনজুড়ে ৯৫ হাজার ৫৮৩ শেয়ার এক হাজার ৮২৭ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর দুই কোটি ৮১ লাখ ৬২ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনিম্ন ২৮৭ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৩১৪ টাকায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ২০৫ টাকা ৪০ পয়সা থেকে ৪৬৩ টাকা ৫০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে।

সর্বশেষ..