কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই ন্যাশনাল টিউবসের

নিজস্ব প্রতিবেদক: শেয়ারদর বাড়ার পেছনে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই প্রকৌশল খাতের কোম্পানি ন্যাশনাল টিউবস লিমিটেড। সম্প্রতি অস্বাভাবিক দর বাড়ার কারণ জানতে চাইলে কোম্পানিটি এমন তথ্য জানায়। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
সম্প্রতি কোম্পানিটির অস্বাভাবিক দর বাড়ার কারণ জানতে চেয়ে ডিএসই নোটিস পাঠায়। জবাবে কোনো অপ্রকাশিত মূল্য সংবেদনশীল তথ্য ছাড়াই শেয়ারদর বাড়ছে বলে জানায় কোম্পানি কর্তৃপক্ষ।
গত ২ অক্টোবর কোম্পানির শেয়ারদর ছিল ১৬৬ টাকা ৬০ পয়সা, যা গত ৯ তারিখে লেনদেন হয় ১৯৬ টাকা ২০ পয়সায়। এ হিসাবে মাত্র পাঁচ কার্যদিবসে কোম্পানিটির দর বেড়েছে ২৯ টাকা ৬০ পয়সা। আর এ দর বাড়াকে অস্বাভাবিক মনে করছে ডিএসই।
এদিকে গতকাল সপ্তাহের শেষদিনে কোম্পানিটির কোম্পানিটির শেয়ারদর শূন্য দশমিক ২০ শতাংশ বা ৪০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ১৯৬ টাকা ৬০ পয়সায় হাতবদল হয়। ওইদিন কোম্পানিটির ১২ লাখ সাত হাজার ৫৬৩টি শেয়ার মোট পাঁচ হাজার ৩০৬ বার লেনদেন হয়। যার বাজারদর ২৪ কোটি ১৩ লাখ ২০ হাজার টাকা। শেয়ারটির সমাপনী দর দাঁড়িয়েছে ১৯৫ টাকা ৭০ পয়সায়। ওইদিন কোম্পানিটির শেয়ারদর সর্বনিম্ন ১৯৪ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২০৫ টাকা ৯০ পয়সায় হাতবদল হয়। আর গত এক বছরে শেয়ারটির দর ৯৮ টাকা ৩০ পয়সা থেকে ২০৫ টাকা ৯০ পয়সায় ওঠানামা করে।
‘এ’ ক্যাটেগরির ন্যাশনাল টিউবস লিমিটেড ১৯৮৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। সর্বশেষ ২০১৮ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় শেয়ারপ্রতি লোকসান (ইপিএস) হয়েছে দুই টাকা পাঁচ পয়সা আর শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ১৯৩ টাকা ৬২ পয়সা। কোম্পানিটির ১০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৩১ কোটি ৬৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৫২৫ কোটি ৫৬ লাখ ২০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির মোট তিন কোটি ১৬ লাখ ৫৬ হাজার ১৮৫টি শেয়ার রয়েছে।

সর্বশেষ..