প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

মোহাম্মাদী ইলেকট্রিক প্রোডাক্টস

রতন কুমার দাস: সব সময় নিরাপদ এ স্লোগান নিয়ে বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রিক পণ্য প্রস্তুত করে আসছে মোহাম্মাদী ইলেকট্রিক প্রোডাক্টস। গ্রুপটি ‘এমইপি’ নামেও পরিচিত। ১৯৭৪ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এমইপি। তখন বরিশালের বিসিক ইন্ডাস্ট্রিয়াল এলাকায় গড়ে ওঠে গ্রুপটি।

বাণিজ্যিকভাবে ১৯৭৬ সালে উৎপাদন শুরু করে এমইপি। তখন উৎপাদিত পণ্যের মধ্যে ছিল সুইচ, সকেট, হোল্ডার প্রভৃতি। গুণগত মান ও আকর্ষণীয় ডিজাইনের কারণে অল্প সময়ের মধ্যে তাদের তৈরি পণ্য ক্রেতাদের আকৃষ্ট করে। সংগত কারণে তাদের পণ্যের চাহিদা বেড়ে যায়। সে চাহিদা পূরণে উৎপাদন বৃদ্ধিতে মনোযোগী হয় এমইপি। এ কারণে বরিশালের হাটখোলায় স্থানাস্তরিত হয় তাদের প্রতিষ্ঠানটি। সেই শুরু। বাংলাদেশের ইলেকট্রিক পণ্য খাতে নবযুগের সূচনা করে এমইপি।

সময়ের পরিক্রমায় উত্তরোত্তর সাফল্য অর্জন করছে এমইপি। উৎপাদিত পণ্য সম্প্রসারণের লক্ষ্যে তারা বাণিজ্যিকভাবে কেবল্স্ প্রস্তুত শুরু করে। সময়টি ১৯৯৯ সালের। এরপর ২০০৫ সালে এনার্জি সেভিং ল্যাম্প উৎপাদন শাখা বর্ধিত করে। বর্তমানে কেবল্স্ ও এনার্জি সেভিং ল্যাম্পের পাশাপাশি ব্যাকলাইট, ইউ পিভিসি পাইপসহ প্রায় এক হাজার ডিজাইনের ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিকস পণ্য তৈরি ও বাজারজাত করছে প্রতিষ্ঠানটি। মূলত ক্রেতাসাধারণের জন্য নিরলস কাজ করে যাচ্ছে এমইপি। বাংলাদেশ ইলেকট্রিক্যাল মার্চেন্ডাইজ ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য মোহাম্মাদী ইলেকট্রিক প্রোডাক্টস।

 পণ্য

কেবল্স্, লাইট, ইলেকট্রনিকস পণ্য, ব্যাকলাইট, ট্যাবলেট, মিনিয়েচার সার্কিটব্রেকার প্রভৃতি উৎপাদন করে এমইপি। লাইটের মধ্যে রয়েছে সিএফএল, এলইডি ও টিউব। ইলেকট্রনিকস পণ্যের মধ্যে রিচার্জেবল ফ্যান, রিচার্জেবল ল্যান্টার্ন, এভিএস, ফ্যান রেগুলেটর, ৩৬ ওয়াটের ইলেকট্রনিকস ব্লাস্ট প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য। ব্যাকলাইটের মধ্যে রয়েছে কয়েকটি সিরিজ। ট্যাবলেটের মধ্যে রয়েছে এমইপি এক্সট্রিম ট্যাব ৯.৬ টি৯৬০। থ্রিজি সাপোর্ট করে এ প্রযুক্তিপণ্যটি। এতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে অ্যানড্রয়েড কিটক্যাট ৪.৪। র‌্যাম এক জিবি, ইন্টারনাল মেমোরি আট জিবি, ৬৪ জিবি পর্যন্ত অভ্যন্তরীণ সুবিধা। আরও একটি ট্যাব বাজারজাত করছে এমইপি। এর নাম এইপি এক্সট্রিম ট্যাব ৮.০ টি৮৬০। এ মডেলটিও থ্রিজি সাপোর্ট করে। দুটি মডেলই দেখতে সুন্দর ও আকর্ষণীয়।

 এলইডি বাল্ব

প্রতিষ্ঠানটির তথ্য অনুযায়ী, এমইপি উৎপাদন করছে উন্নত প্রযুক্তির এলইডি বাল্ব। এ ধরনের বাল্বের লাইফটাইম ৩০ হাজার ঘণ্টা। বাজারের অন্য বাল্বের তুলনায় এটি তুলনামূলক বেশি টেকসই। সাধারণ এনার্জি বাল্বের তুলনায় দ্বিগুণ আলো দেয় এমইপির এলইডি বাল্ব। এমনকি লো ভোল্টেজেও দেয় পর্যাপ্ত আলো। প্রতিষ্ঠানটি এ বাল্বের ওপর দুবছরের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি দিয়ে থাকে। সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি হয় এমইপি এনার্জি সেভিং ল্যাম্প। ৯০ শতাংশ বিদ্যুৎ বিল সাশ্রয় করে এ বাল্ব।

এমইপি কেবল্স্

মোহাম্মাদী ইলেকট্রিক প্রোডাক্টসের অন্যতম জনপ্রিয় পণ্য কেবল্স্। প্রতিষ্ঠানটি ১৯৯৫ সাল থেকে কেবল্স্ প্রস্তুত করে আসছে। গুণগত মানে সেরা কেব্ল্ তৈরি করে থাকে প্রতিষ্ঠানটি। বাসাবাড়ির পাশাপাশি শিল্প-কারখানা, এক্সএলপিই, ভুগর্ভস্থ কেব্ল্ উৎপাদন করা হয় এখানে। প্রায় শতভাগ খাঁটি কপার দিয়ে তৈরি করা হয় কেব্ল্। এ ধরনের কেব্ল্ ২৫ শতাংশ পর্যন্ত বিদ্যুৎসাশ্রয়ী।

 পরিচালনা পর্ষদ

মোহাম্মাদী ইলেকট্রিক প্রোডাক্টসের চেয়ারম্যান শামসুল আলম চাকলাদার। ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন ড. জাহাঙ্গীর আলম চাকলাদার।

বিপণন বিভাগের পরিচালক হিসেবে রয়েছেন শাকিল আলম চাকলাদার। সুদক্ষ ও পরিশ্রমী কর্মীবাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত এমইপি। নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা থেকে শুরু করে কর্মীদের দক্ষ করে তুলতে ব্যবস্থাপনা পর্ষদ খুবই আন্তরিক। পরিবেশবান্ধব হিসেবে সুখ্যাতি রয়েছে মোহাম্মাদী ইলেকট্রিক প্রোডাক্টসের।

ক্রেতাসাধারণকে সব সময় নিরাপদে রাখার চেষ্টা করে এমইপি গ্রুপ। একইভাবে গ্রুপটি কর্মীদের জন্য নিরাপদ ও স্বাস্থ্যসম্মত কর্মপরিবেশ উপহার দিয়ে আসছে। নিরাপদ কর্মস্থল হিসেবে সুনাম রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির। যথাসময়ে কর্মীদের সব ধরনের চাহিদা মিটিয়ে থাকে তারা।

 করপোরেট কনট্যাক্ট

বরিশাল ও ঢাকায় মোহাম্মাদী ইলেকট্রিক প্রোডাক্টসের করপোরেট অফিস রয়েছে। একই সঙ্গে ঢাকা, বরিশালসহ বগুড়া, গাজীপুর, চট্টগ্রাম, খুলনা, কুষ্টিয়ায় তাদের শাখা অফিস ও ডিলার পয়েন্ট রয়েছে। যথাসময়ে ক্রেতার চাহিদামতো পণ্য সরবরাহ করে থাকে প্রতিষ্ঠানটি। শুধু তা-ই নয়, চাইলে অনলাইনে অর্ডার করতে পারেন যে কোনো ক্রেতা। তাছাড়া ফোন করে পণ্য কেনা কিংবা পণ্য সম্পর্কিত তথ্য পাওয়ার সুবিধা তো আছেই।

মোহাম্মাদী ইলেকট্রিক প্রোডাক্টসের (এমইপি) সিস্টার কনসার্ন

মোহাম্মাদী ইলেকট্রিক ওয়্যারস অ্যান্ড মাল্টিপ্রোডাক্টস লিমিটেড (এমইপি লি.)

এমইপি এনার্জি সেভিং ল্যাম্পস ইন্ডাস্ট্রিজ লি.

এমইপি পলিমার ইন্ডাস্ট্রিজ লি.

আল-আমিন স্টোরস