প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত জলাবদ্ধ রাজশাহী নগরী

 

আসাদুজ্জামান রাসেল, রাজশাহী : রাজশাহী নগরীতে ভারি বৃষ্টির কারণে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। গত মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে থেমে থেমে হচ্ছে প্রচুর বৃষ্টি। গতকাল বুধবার বেলা ১টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ১১৪ দশমিক চার মিলিমিটার। আবহাওয়া অফিসের দেওয়া তথ্য, এটিই এ মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত। দেশে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে রাজশাহীতে। এতে মহানগরীর বেশিরভাগ এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়।

বুধবার সকালে নগরীর সাহেববাজার, বিন্দুর মোড়, শালবাগার, রাজশাহী পলিটেকনিক, সপুরা, উপশহর, তেরখাদিয়া, বিলশিমলা, লক্ষ্মীপুর, সিপাইপাড়া, মেডিক্যাল, ভাটাপাড়া, সিটিবাইপাস, টিকাপাড়া, মেহেরচণ্ডি, তালাইমারী, বিনোদপুরসহ বেশ কিছু এলাকা ঘুরে হাঁটু থেকে কোমর পানিতে ডুবে থাকতে দেখা গেছে। এদিকে সুযোগ বুঝে অটোরিকশা ও রিকশাচালকরা গলাকাটা ভাড়া আদায় করেছেন। সাধুর মোড়ের হীরক জানান, সকাল ৯টার দিকে বাসা থেকে বের হয়ে দেখেন, রাস্তা পানিতে ডুবে গেছে। পয়ঃনিষ্কাশন ড্রেনের ময়লা-আবর্জনা তাতে মিশে চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে।

রিকশাচালকদের বিরুদ্ধে গলাকাটা ভাড়া আদায়ের তীব্র অভিযোগ থাকলেও তারা জানান, বৃষ্টির পানিতে ভিজে যাত্রীদের কাছ থেকে কিছু টাকা বেশি পেলেও তা চলে যায় ডাক্তারের ফি দিতে আর ওষুধ কিনতে। বৃষ্টিতে ভিজে একদিন রিকশা চালালে জ্বর-সর্দিসহ নানা ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে এক সপ্তাহ বিছানায় পড়ে থাকতে হয়।

নগরীর সাহেববাজার এলাকার ফুটপাত ব্যবসায়ীরা জানান, ভারি বৃষ্টির কারণে তারা দুপুর পর্যন্ত দোকান খুলতে পারেননি। সকাল থেকেই ছিল জলাবদ্ধতা, রাস্তায় হাঁটু পানি। যানবাহন চলাচল নেই বললেই চলে। কাজে আসা মানুষ ছাড়া বাইরে তেমন কেউ বের হননি। ফলে বেচাবিক্রি হয়নি। ভারি বৃষ্টিপাত হলে প্রায় এমনই দুর্ভোগ ওই এলাকায়।