আজকের পত্রিকা বাণিজ্য সংবাদ সারা বাংলা

যশোরে নকল ব্যান্ডরোলযুক্ত বিড়ি, নকল ব্যান্ডরোল আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরে এক লাখ শলাকা নকল ব্যান্ডরোল যুক্ত লতিফ বিড়ি ও ২০ হাজার পিস নকল ব্যান্ডরোল আটক করা হয়েছে। যশোর কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের নিবারক দল এ বিশাল অঙ্কের নকল ব্যান্ডরোল আটক করেছে। মঙ্গলবার (২ জুন) যশোরের ঝিকরগাছা রাজারডুমুরিয়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে এসব আটক করা হয়। যশোর ভ্যাট কমিশনার মো. জাকির হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সকাল ১১টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর‌্যন্ত রাজারডুমুরিয়া গ্রাম অভিযান চালানো হয়। অ‌ভিযা‌নে নকল ব‌্যান্ড‌রোলযুক্ত মোট এক লাখ শলাকা ল‌তিফ বি‌ড়ি এবং ২০ হাজার ‌পিস নকল ব‌্যান্ড‌রোল আটক করা হয়।

আরো পড়তে ক্লিক করুন-ভারগন টোব্যাকোর বিরুদ্ধে যশোরে মামলা

কমিশনার বলেন, রাজারডুমুরিয়া গ্রামের মোবারক আলী সরদারের ছেলে মো. আফিল উদ্দিনের কাছ থেকে ১৬ হাজার শলাকা নকল ব্যান্ডরোলযুক্ত লতিফ বিড়ি ও দুই হাজার ৭০০ পিস নকল ব্যান্ডরোল আটক করা হয়। একই গ্রামের মো. মকবুল হোসেনের ছেলে মো. ওয়া‌জেদ আলীর কাছ থেকে ২৯ হাজার শলাকা নকল ব‌্যান্ড‌রোলযুক্ত লতিফ বি‌ড়ি ও ১১ হাজার ৭৬০ পিস নকল ব‌্যান্ড‌রোল আটক করা হয়।

তিনি বলেন, একই গ্রা‌মের বি‌ভিন্ন জায়গায় প‌রিত‌্যাক্ত অবস্থায় ৫৫ হাজার শলাকা নকল ব‌্যান্ড‌রোলযুক্ত ল‌তিফ বি‌ড়ি এবং ৫ হাজার ৫৪০ ‌পিস নকল ব‌্যান্ড‌রোল জব্দ করা হ‌য়ে‌ছে। এ বিষয়ে মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইনের ধারা ১১১ অনুযায়ী যশোর বিচারিক আদালতে ফৌজদারি মামলা এবং ধারা ৮৫ অনুযায়ী বিভাগীয় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান কমিশনার।

অপরদিকে, এর আগে নতুন মূল্য সংযোজন ও সম্পূরক শুল্ক আইনে ভ্যাট কমিশনারেটগুলোর মধ্যে প্রথমবার যশোর ভ্যাট কমিশনারেট ভারগন টোব্যাকোর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা দায়ের করেছে। সিগারেটে রাজস্ব ফাঁকির বিষয়ে এ কমিশনারেট বেশ কিছু অভিযান পরিচালনা করে। এর মধ্যে কুষ্টিয়ার ভারগন টোব্যাকোর গুদাম ও ফ্যাক্টরিতে তিনটি পৃথক অভিযান পরিচালনা করে বিপুল পরিমাণ নকল ব্যান্ডরোল ও সিগারেট জব্দ করা হয়।

প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে নতুন ভ্যাট আইনে রাজস্ব ফাঁকির মামলা করে যশোর ভ্যাট কমিশনারেট। এছাড়া প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে অপরাধ অনুযায়ী ফৌজদারি মামলার অনুমতি চেয়ে যশোর ভ্যাট কমিশনারের কাছে কুষ্টিয়া কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট আবেদন করে। ২৩ ফেব্রুয়ারি কমিশনার মুহম্মদ জাকির হোসেন মামলার অনুমতি দেন। সে অনুযায়ী গতকাল কুষ্টিয়া কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা মো. আবদুল আলীম বাদী হয়ে মামলা করেন। 

###

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..