সারা বাংলা

যশোর হাসপাতালে শিশুদের টিকা সংকট

প্রতিনিধি, যশোর: যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে শিশুদের নানা ধরনের টিকা সংকট দেখা দিয়েছে। টিকা না থাকায় দুশ্চিন্তায় পড়েছেন অভিভাবকরা। প্রতিদিনই শিশুসন্তানকে টিকা দেওয়ার জন্য হাসপাতালে গিয়ে ফিরে আসতে হচ্ছে মা’দের। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে এসব টিকা দিতে না পারলে শিশুদের সংশ্লিষ্ট রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ইপিআই হেডকোয়ার্টার থেকে সরবরাহ না করার কারণে এ সংকট সৃষ্টি হয়েছে।

সূত্র জানিয়েছে, বিসিজি ও আইপিভি শিশুদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ টিকা। ব্যাসিলাস ক্যালমেট-গুয়েরিন (বিসিজি) টিকা যক্ষ্মার (টিবি) বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হয়। এটি সুস্থ শিশুর জšে§র পর ৪৫ দিনের মধ্যে যতটা সম্ভব কাছাকাছি সময়ে একটি ডোজ দেওয়া হয়। এছাড়া, আইপিভি হলো ‘ইনঅ্যাক্টিভেটেড পোলিও ভ্যাকসিন’। এটি ইনজেকশনের মাধ্যমে জšে§র এক মাসের মধ্যে দেওয়া হয়। এছাড়া টিটেনাস থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য অন্তঃসত্ত্বা মাসহ সবার প্রয়োজনীয় টিটি টিকারও অভাব রয়েছে। এসব টিকা সঠিক সময়ে দেওয়া না হলে শিশুরা সংশ্লিষ্ট রোগসহ নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে থাকে।

গত এক মাস ধরে নেই আইপিভি, বিসিজি ও টিটি টিকা। এসব টিকা না থাকায় ইপিআই বিভাগ প্রায় বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। প্রতিদিনই ৪০ থেকে ৬০ অভিভাবক তাদের শিশুদের নিয়ে টিকা দিতে হাসপাতালের ইপিআই বিভাগে এসে বিমুখ হয়ে ফিরে যাচ্ছেন।

শিশুদের অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সময়মতো টিকা দিতে না পারলে কোনো সমস্যা হয় কি নাÑএমন আশঙ্কা সব সময়ই তাদের তাড়া করছে। জরুরি ভিত্তিতে টিকা সরবরাহের দাবি জানান তারা।

এ ব্যাপারে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. দিলীপ কুমার রায় বলেন, এটি যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের সংকট নয়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ইপিআই হেডকোয়ার্টারের সংকট। হেডকোয়ার্টার থেকে যখন টিকা সরবরাহ করা হয়ে থাকে, তখন শিশুদের দেওয়া হয়। আমরা বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..