বিশ্ব সংবাদ

যুক্তরাজ্যে শপিংমল আবার খুলে দেয়ায় আস্থা বেড়েছে ব্যবসায়

শেয়ার বিজ ডেস্ক: যুক্তরাজ্যে কভিড-১৯-এর সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে কমে যাওয়ায় কভিডের বিধিনিষেধ শিথিল করেছে দেশটি। গতকাল সোমবার থেকে দেশটির লন্ডন, ওয়েলস ও উত্তর আয়ারল্যান্ডসহ প্রায় সব অঞ্চলে দোকানপাট, হোটেল-রেস্তোরাঁ, সেলুন, বার, স্পা সেন্টার, ব্যায়ামাগার, বিনোদন কেন্দ্র ও পর্যটন এলাকাগুলো আবার চালু করা হয়েছে। দেশটির বিভিন্ন শহরের খুচরা-পাইকারি সব ধরনের দোকানপাট আবার চালু করায় যুক্তরাজ্যের বিজনেস কনফিডেন্স (ব্যবসায় আস্থা) চূড়ায় উঠেছে। খবর: বিবিসি, গার্ডিয়ান।

যুক্তরাজ্যের বাজার বিশ্লেষণকারী সংস্থা স্পিংবোর্ড জানায়, গত সপ্তাহের তুলনায় গতকাল সোমবার সকালের দিকে খুচরা বাজারগুলোয় ২০০ শতাংশ বেশি ক্রেতা এসেছেন। যদিও এক বছর আগের তুলনায় (লকডাউনের প্রথম দিকে) গতকাল ১৪ দশমিক সাত শতাংশ কম ক্রেতা এসেছেন, যা ২০১৯ সালের এ সময়ের তুলনায় ১২ শতাংশ বেশি।

এদিকে অন্য একটি জরিপ প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, ব্রিটেনের দোকানপাট আবার চালু করায় দেশটির ব্যবসায় আস্থা রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছাবে।

এক সমীক্ষায় তারা বলেছে, করোনা ভ্যাকসিন আবিষ্কার এবং ব্রেক্সিট-পরবর্তী এক বছরের মধ্যে ব্যবসায় আস্থা রেকর্ড উচ্চতায় থাকবে। তারা ভবিষ্যদ্বাণী করে বলেছে, আগামী ১২ মাস যুক্তরাজ্যের অর্থনীতি শক্ত অবস্থানে থাকবে, যা ২০১৪ সাল-পরবর্তী সময়ে সর্বোচ্চ।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান অর্থনীতিবিদ ইয়ান স্টেওয়ার্ট বলেছেন, গত চার বছর ব্রেক্সিট ইস্যুতে যুক্তরাজ্যের বাণিজ্যিক কার্যক্রমে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। তিনি বলেন, গত জানুয়ারিতে চূড়ান্তভাবে আমরা ইউরোপীয় ইইউনিয়ন থেকে বের হতে পেরেছি। আর এখন কভিড ভ্যাকসিন আবিষ্কারের সফলতায় ব্যবসায়ীরা আশাবাদী হয়ে উঠেছেন।

এদিকে যুক্তরাজ্য সরকারের দপ্তর সূত্রে জানা যায়, উত্তর আয়ারল্যান্ডে এখনও ঘরে থাকার ব্যাপারে কিছু কঠোর বিধিনিষেধ রয়েছে। কিন্তু ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড ও ওয়েলসে বিধিনিষেধ পুরোপুরি তুলে দেয়া হয়েছে।

এদিকে, দক্ষিণ ইংল্যান্ডে তুষার ও আর্দ্র তাপমাত্রার কারণে সকালের দিকে দোকান ও সেলুন খোলা হলেও ক্রেতা কম লক্ষ করা গেছে।

অন্যদিকে দক্ষিণ-পূর্ব লন্ডনে দোকান ও সেলুনে ভোর থেকে ক্রেতারা আসতে শুরু করেছেন। নিকোলাস হ্যায়ার নামে এক সেলুনের মালিক জানান, সেলুন খোলার এক ঘণ্টার মধ্যে অনেক ক্রেতা এসেছেন। তিনি বলেন, ক্রেতাদের উপস্থিতি যেন এক অন্যরকম উদ্যাপন। তিনি বলেন, সারা দিনের চুল কাটানোর সিরিয়াল এক ঘণ্টার মধ্যেই বুক হয়ে গেছে।

এদিকে দোকানপাট আবার চালু করার বিষয়ে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন জনগণের উদ্দেশে বলেন, স্বাধীনতা উপভোগ করুন, তবে ঝুঁকি এড়াতে সাবধান থাকতে হবে। তিনি বলেন, সবার জন্য বার ও দোকানপাট সব উš§ুক্ত থাকবে, যা ব্যবসায়ীদের জন্য সুখকর বিষয়।

প্রায় চার মাস পরে যুক্তরজ্যের ব্যবসা আবার চালু করা হয়।

প্রসঙ্গত, তৃতীয় দফায় গত ৬ জানুয়ারি যুক্তরাজ্যে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। এ পর্যন্ত দেশটিতে ৩২ মিলিয়ন মানুষ কভিডের প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন। আর সাত দশমিক চার মিলিয়ন মানুষ দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েছেন।

কভিডে এ পর্যন্ত এক লাখ ২৭ হাজার ৮৭ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৪৩ লাখ ৬৯ হাজার ৭৭৫ জন। গত তিন মাসে মোট আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৭৩০ জন এবং মোট মারা গেছনে সাতজন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..