বিশ্ব সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রের অবকাঠামো উন্নয়নে বিনিয়োগ করতে চান বেজোস

শেয়ার বিজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের অবকাঠামো উন্নয়নে আমাজন.কমের প্রতিষ্ঠাতা শীর্ষ ধনী জেফ বেজোস বড় বিনিয়োগ করতে চান। একই সঙ্গে তিনি দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নেয়া পদক্ষেপকে সমর্থন করেন। সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার উন্নয়ন পরিকল্পনায় করপোরেট কর ২১ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ২৮ শতাংশ করার প্রস্তাব দেন। আর দেশটির নাগরিক ও শীর্ষ ধনকুবের জেফ বেজোস প্রেসিডেন্টের এ প্রস্তাব সমর্থন করে বলেন, এতে যুক্তরাষ্ট্রের অবকাঠামোগত উন্নয়ন হবে। খবর: ব্ল–মবার্গ, রয়টার্স।

সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার উন্নয়ন পরিকল্পনায় দুই দশমিক ছয় ট্রিলিয়ন ডলার ঘোষণা করেন। যেখানে দেশটির রাস্তাঘাট উন্নয়ন, অর্থনীতি পুনরুদ্ধার, জলবায়ু পরিবর্তন প্রভৃতি ইস্যু প্রাধান্য পেয়েছে।

এ বিষয়ে আমাজন প্রতিষ্ঠাতা বলেন, তার কোম্পানি আমেরিকার অবকাঠামোগত উন্নয়নে বড় বিনিয়োগ করবে। তিনি বলেন, আমরা কর দিয়ে এবং বিনিয়োগ করে এ ক্ষেত্রে অবদান করতে পারব। এখন দেখার বিষয় যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস কীভাবে দেশের তুলনামূলক উন্নয়নকে ব্যালেন্স করে।

ধনকুবেরদের সম্পদ ও সংখ্যা বাড়ছে: এদিকে, করোনা মহামারির মধ্যেও মার্কিন বিজনেস ম্যাগাজিন ফোর্বস বলছে, বিশ্বে এখন বিলিয়নিয়ারের সংখ্যা রেকর্ড দুই হাজার ৭৫৫ জন। ধনকুবেরদের এ তালিকার শীর্ষে রয়েছেন আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস। টানা চতুর্থবারের মতো তালিকার শীর্ষে রয়েছেন তিনি।

বিশ্বে এখন যে দুই হাজার ৭৫৫ জন বিলিয়নিয়ার রয়েছেন তাদের হাতে রয়েছে মোট ১৩ দশমিক এক ট্রিলিয়ন ডলারের সম্পদ; গত বছর যা ছিল আট ট্রিলিয়ন ডলার। অর্থাৎ একবছরে এ অতিধনীদের সম্পদ বেড়েছে পাঁচ ট্রিলিয়ন ডলারেরও বেশি।   

ফোর্বসের চিফ কন্টেন্ট অফিসার র‌্যানডাল লেন এক সাক্ষাৎকারে বিষয়টির বর্ণনা করেছেন এভাবে, পৃথিবীর অতি, অতিধনীরা আরও, আরও বেশি ধনী হয়েছেন।   

টেসলার প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্ক এবার তালিকার দুই নম্বরে উঠে এসেছেন, গত বছরের তালিকায় তিনি ছিলেন ৩১ নম্বরে। এরপরে রয়েছেন বিলাসবহুল পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এলভিএমএইচের প্রধান নির্বাহী বার্নার্ড আরনল্ট, মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস এবং ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..