বিশ্ব সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রের কড়া সমালোচনায় জি-৭ নেতারা নতুন শুল্কারোপ হলে সব সমঝোতা

শেয়ার বিজ ডেস্ক : দু’পক্ষের মধ্যে আলোচনা শেষ করার আগেই যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে শুল্কারোপ করলে তা ভালো ফল বয়ে নিয়ে আসবে না বলে সতর্ক করে দিয়েছে চীন। নতুন শুল্কারোপের ঘোষণা হলে তা দু’দেশের মধ্যে যে কোনো ধরনের সমঝোতা অকার্যকর করে দেবে বলে চীন হুশিয়ারি উচ্চারণ করেছে। বেইজিংয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে চীনের পক্ষ থেকে এ ধরনের প্রতিক্রিয়া দেখানো হলো। এদিকে শুল্কারোপ ও বাণিজ্য যুদ্ধ ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের কড়া সমালোচনা করেছেন জি-৭ ভুক্ত দেশগুলোর নেতারা। খবর রয়টার্স, সিএনএন, বিবিসি।
দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্য উত্তেজনার মধ্যে চলমান ধারাবাহিক আলোচনার অংশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যমন্ত্রী উইলবার রসের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল গত শনিবার এবং গতকাল রোববার বৈঠকে বসেন। পরে চীনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়ায় প্রকাশিত এক সংক্ষিপ্ত বিবৃতিতে এ আলোচনাকে ইতিবাচক এবং ফলপ্রসূ হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।
দু‘দেশের মধ্যে আলোচনার বিষয়ে সামান্য কিছু তথ্যমফ বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে এতে যুক্তরাষ্ট্রের পণ্য আরও বেশি কেনার বিষয়ে চীন স্পষ্ট করে কোনো প্রতিশ্রæতি দেয়নি। বিবৃতিতে সতর্ক করে দিয়ে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র যদি নতুন করে শুল্কারোপের মতো কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে তাহলে উভয় দেশের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে করা সব ধরনের অর্থনৈতিক ও বাণিজ্য সমঝোতায় তার প্রভাব পড়বে।
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যখন বেশকিছু চীনা পণ্যের ওপর নতুন করে ট্যাক্স আরোপের পদক্ষেপের কথা জানিয়েছেন তখন বেইজিংয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হলো। একই সময়ে কানাডা, মেক্সিকো এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের ধাতব পণ্যের ওপরও ট্যাক্স আরোপের কথা বলেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।
চীন ও যুক্তরাষ্ট্র উভয় দেশই পাল্টাপাল্টি শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার অংশ হিসেবে প্রায় ১৫০ বিলিয়ন ডলার মূল্যের পণ্যে ট্যাক্স আরোপের হুমকি দিয়েছে। এ বিষয়ে সিনহুয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীন সঙ্গতিপূর্ণ আচরণে বিশ্বাস করে। বেইজিং যুক্তরাষ্ট্রসহ সব দেশ থেকেই পণ্য আমদানি বৃদ্ধি করতে আগ্রহী বলেও এতে জানানো হয়েছে।
বৈইজিং বৈঠকের পর চীনের হুশিয়ারির বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে এখনও কোনো ধরনের বক্তব্য দেওয়া হয়নি। এমনকি উইলবার রস এবং প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যরা এ বিষয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করেননি। তবে এর আগে অনুষ্ঠিত ওয়াশিংটন বৈঠক শেষে উভয় দেশই একটি যৌথ বিবৃতি দিয়েছিল।
এদিকে শুল্কারোপ ও বাণিজ্যযুদ্ধ ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থমন্ত্রী স্টিভেন মুচিনের আবারও কড়া সমালোচনা করেছেন জি-৭ ভুক্ত দেশগুলোর অর্থমন্ত্রীরা। কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, জাপান ও যুক্তরাজ্যের নেতারা এক যৌথ বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের পদক্ষেপকে দুঃখজনক উল্লেখ করে এ বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। এছাড়া দেশগুলো আলাদাভাবে যুক্তরাষ্ট্রের পদক্ষেপের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন। আর বৈঠকে সদস্য দেশগুলোর মধ্যে মতপার্থক্য রয়েছে বলে জানিয়েছেন কানাডার অর্থমন্ত্রী বিল মরনিউ। তবে কানাডার স্কি রিসোর্টে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে স্টিভেন মুচিন অধিকাংশ অভিযোগই অস্বীকার করেছেন। সেখানে দেশগুলোর মধ্যে বাণিজ্য ইস্যুতে অনৈক্যের বিষয়টি প্রকাশ পেয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..