বিশ্ব সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনা চাইছেন মাদুরো

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সরাসরি আলোচনার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তিনি দাবি করেন, দেশের সবকিছু এখনও তার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে এবং তিনি স্বস্তির সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছেন। তা সত্ত্বেও ওয়াশিংটন পোস্ট পত্রিকায় শনিবার প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে তিনি আলোচনার আগ্রহের কথা জানান। খবর রয়টার্স।

নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ ও অর্থনৈতিক সংকটের বিরুদ্ধে ২০১৯ সালের শুরুতে ভেনেজুয়েলায় বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভের সুযোগে ২৩ জানুয়ারি নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুয়াইদো। প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর সরকারকে অবৈধ দাবি করে নিজেকে বৈধ অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের আরও ৫০টিরও বেশি দেশ গুয়াইদোকে দেশটির বৈধ অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। মাদুরোকে ক্ষমতাচ্যুত করা এবং তেলশিল্পের নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ আমেরিকার এ দেশটির ওপর অবরোধ আরোপ করে।

গত বছর ফেব্রুয়ারিতে ভেনেজুয়েলা থেকে স্প্যানিশ ভাষায় আমেরিকার টেলিভিশন নেটওয়ার্ক ইউনিভিশনের সব সাংবাদিককে আকস্মিকভাবে বের করে দেওয়ার পর এই প্রথম মাদুরো যুক্তরাষ্ট্রের বড় কোনো পত্রিকাকে সাক্ষাৎকার দিলেন। ওয়াশিংটন পোস্টকে তিনি বলেন, ‘যদি সরকারগুলো পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়, তবে যুক্তরাষ্ট্র কত বড় সেটা কোনো বিষয় হবে না। এছাড়া যদি উভয়ের মধ্যে সংলাপ ও সত্য তথ্য বিনিময় হয়, তবে নিশ্চিতভাবে আমরা নতুন ধরনের সম্পর্ক তৈরি করতে পারব।’

সাক্ষাৎকারে মাদুরো জানান, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আরোপিত অবরোধ অবসানে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত। তিনি বলেন, ট্রাম্প অবরোধ প্রত্যাহার করলে ভেনেজুয়েলার তেল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের তেল কোম্পানিগুলো ব্যাপকভাবে লাভবান হতে পারে। তিনি আরও বলেন, ‘নিয়ম হলো পারস্পরিক শ্রদ্ধাশীল সম্পর্ক ও আলোচনা, যা সবার জন্যই কল্যাণকর পরিস্থিতি বয়ে আনে।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..