প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

যুক্তরাষ্ট্রে শীতে কভিড কমার সম্ভাবনা

শেয়ার বিজ ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রে এবারের শীতে কভিড-১৯ সংক্রমণ কমার সম্ভাবনা রয়েছে। গত বছরের তুলনায় এবার আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাও কম থাকবে বলে জানিয়েছেন দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। খবর: নিউইয়র্ক টাইমস।

যুক্তরাষ্ট্রে গত বছরের তুলনায় কভিড নিয়ন্ত্রণে এবারের প্রস্তুতি ভালো। তাই স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা এ আশার কথা জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসি বলেছেন, সংক্রমণ ও টিকাদান মিলিয়ে পর্যাপ্ত সামাজিক সুরক্ষা তৈরি হয়েছে বলে আশাবাদী প্রশাসন। গত বছর এই সময়ে আমরা যা দেখেছি, এবার আমরা তার পুনরাবৃত্তি দেখতে যাচ্ছি না।

হোয়াইট হাউসের কভিড-১৯ রেসপন্স কো-অরডিনেটর চিকিৎসক আশীষ কে ঝা বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত আমেরিকানরা টিকা ও বুস্টার নেয়া অব্যাহত রাখছেন, ততক্ষণ তিনি এই ছুটির মৌসুম নিয়ে আত্মবিশ্বাসী। উপধরনগুলোয় আমি এমন কিছু দেখিনি, যাতে আমার মনে করতে হবে, আমরা আমাদের কাজকর্ম কার্যকরভাবে চালিয়ে যেতে পারব না। বিশেষ করে যদি লোকজন এগিয়ে আসেন এবং নিজেদের টিকাটা নেন।

এখন পর্যন্ত মডার্না ও ফাইজারের টিকার ডোজের একটি নিয়েছেন মাত্র তিন কোটি ৫০ লাখ আমেরিকান। প্রশাসন এর চেয়ে পাঁচগুণ বেশি মানুষের জন্য টিকার নতুন ডোজ মজুত রেখেছে। দুই বছর ধরে একের পর এক টিকার প্রচারণায় ক্লান্ত আমেরিকানরা নতুন বুস্টার ডোজ নিতে অনিচ্ছুক। প্রশাসন গত সেপ্টেম্বরে এই বুস্টার দেয়া শুরু করে। করোনায় এখনও প্রতিদিন প্রায় ৩০০ আমেরিকান মারা যাচ্ছেন, যদিও কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, টিকা ও চিকিৎসার মাধ্যমে এখন করোনাজনিত সব মৃত্যুই প্রতিরোধযোগ্য।

গত বছরের এ সময় করোনার ওমিক্রন ধরনের কারণে সংক্রমণ বিপজ্জনক পর্যায়ে গিয়ে ঠেকে। ওই সময় প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আফ্রিকার আট দেশ থেকে ভ্রমণ নিষিদ্ধ করেন। তিনি আমেরিকানদের আতঙ্কিত না হতে বললেও পরে সামরিক বাহিনীর চিকিৎসাকর্মীদের হাসপাতালগুলোয় নিয়োজিত করেন প্রেসিডেন্ট। কর্মকর্তারা আশঙ্কা করেছিলেন, রোগীর চাপ সামলাতে হিমশিম খেতে হবে।

এদিকে বিশ্বে কভিডে গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়েছে। এ সময় ৯৯৪ জনের মৃত্যুর পাশাপাশি সংক্রমিত হয়েছেন তিন লাখ ৮২
হাজার ২৬০ জন।