বিশ্ব সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্র জার্মানি ও যুক্তরাজ্যে কভিড টিকা আগামী মাসেই

শেয়ার বিজ ডেস্ক : করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট রোগ কভিড-১৯ এ ইতোমধ্যে বিশ্বব্যাপী প্রায় ছয় কোটি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ১৩ লাখের বেশি মানুষ। এখন আবার সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে আশা দেখাচ্ছে করোনার টিকা। ফাইজার ও বায়োএনটেক, মডার্না ও অক্সফোর্ডের টিকা অনেকটাই কার্যকর বলে ঘোষণা এসেছে। যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি ও যুক্তরাজ্যের মতো দেশগুলো আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই টিকা দিতে শুরু করবে বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে। খবর : রয়টার্স ও সিএনএন।  

যুক্তরাষ্ট্রের আগেই ফাইজার ও বায়োএনটেকের টিকার অনুমোদন দিয়ে দিতে পারে যুক্তরাজ্য। এ জন্য আগামী ১ ডিসেম্বরের মধ্যেই ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসকে (এনএইচএস) প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে। গত রোববার দ্য টেলিগ্রাফ সাইট এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যে দ্য গার্ডিয়ান। সরকারের একাধিক সূত্রের বরাতে তাদের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ সপ্তাহেই টিকার অনুমোদন মিলে যেতে পারে। যুক্তরাজ্যের নিয়ন্ত্রকরা টিকার আনুষ্ঠানিক মূল্যায়ন শুরু করতে চলেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন গত শুক্রবার বলেছে, তারা আগামী ১০ ডিসেম্বর টিকার অনুমোদন-সংক্রান্ত একটি বৈঠকে বসবে। অবশ্য যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে প্রথম টিকা দেওয়ার নির্দিষ্ট দিনক্ষণ নিয়ে গতকাল পর্যন্ত কোনো মন্তব্য করা হয়নি। স্বাস্থ্য বিভাগের একজন মুখপাত্র বলেছেন, যুক্তরাজ্যের টিকা দেখভালের দায়িত্বে থাকা মেডিসিনস অ্যান্ড হেলথকেয়ার প্রডাক্টস রেগুলেটরি এজেন্সি (এমএইচআরএ) ফাইজারের টিকার সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে স্বাধীন। তাদের টিকার চূড়ান্ত তথ্য মূল্যায়নে যত দিন সময় লাগবে, তা নিতে পারে। কভিড-১৯ টিকা দেওয়ার জন্য স্বাস্থ্যসেবা খাতে প্রচুর পরিকল্পনা প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে।

গত সপ্তাহে যুক্তরাজ্য সরকার এমএইচআরএকে ফাইজারের টিকাটি পরীক্ষার জন্য বলে। ইতোমধ্যে দেশটি চার কোটি ডোজ টিকার ফরমাশ দিয়েছে। তবে এ বছরে এক কোটি ডোজ টিকা পাওয়ার আশা করছে, যা দেশটির ৫০ লাখ মানুষের সুরক্ষায় যথেষ্ট বলে মনে করা হচ্ছে।

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেড্রো সানচেজ গতকাল বলেছেন, জানুয়ারি মাস থেকে ব্যাপক টিকাদান কর্মসূচি পরিচালনা করবে তার দেশ। তিন মাসের মধ্যে দেশটির মোট জনসংখ্যার উল্লেখযোগ্য অংশের জন্য টিকা নিশ্চিত করা হবে। পেড্রো বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) মধ্যে প্রথম দেশ হিসেবে স্পেন ও জার্মানির সম্পূর্ণ টিকাদান কর্মসূচির পরিকল্পনা নেওয়া আছে। স্পেনে আগামী জানুয়ারিতে টিকা দেওয়ার জন্য ১৩ হাজার টিকাদান কেন্দ্র প্রস্তুত আছে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের টিকাদান কর্মসূচির প্রধান মনসেফ সøাউয়ি টিকা দেওয়ার সুনির্দিষ্ট তারিখের কথা বলে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকরা প্রথম ১১ ডিসেম্বর টিকা পেতে পারেন। সিএনএনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মনসেফ বলেছেন, অনুমোদন পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে টিকাদান কেন্দ্রে টিকা পৌঁছানোর পরিকল্পনা রয়েছে। তাই আশা করা যাচ্ছে, অনুমোদনের পরদিনই বা দুই দিনের মধ্যেই টিকা দেওয়া শুরু হবে। সম্ভাব্য তারিখ হতে পারে ১১ বা ১২ ডিসেম্বর।

জার্মানিও আগামী মাসে কভিড-১৯ টিকা দেওয়া শুরু করতে পারে। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেনস স্প্যান সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘এ বছর ইউরোপে একটি টিকার অনুমোদন হবে বলে আশাবাদী হওয়ার কারণ রয়েছে।’ তিনি জার্মান সরকারকে টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি হিসেবে ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকে টিকাদান কেন্দ্র প্রস্তুত রাখার কথা বলেছেন। দেশটি বিভিন্ন চুক্তি করে ৩০ কোটি ডোজের বেশি টিকা পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে রেখেছে। স্প্যান বলেছেন, তারা যে টিকার ফরমাশ দিয়ে রেখেছেন, তা প্রয়োজনের চেয়ে বেশি। দরকার পড়লে অন্য দেশের সঙ্গে ভাগাভাগিও করা যাবে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..