বিশ্ব প্রযুক্তি

যুক্তরাষ্ট্র লিবরার অনুমোদন না দিলে সুবিধা পাবে চীন: জাকারবার্গ

শেয়ার বিজ ডেস্ক:সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের ক্রিপ্টোকারেন্সি লিবরা প্রকল্পে যুক্তরাষ্ট্র বাধা দিলে এর সুবিধা পাবে চীন। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান মার্ক জাকারবার্গ মার্কিন কংগ্রেসকে এমন বার্তা দিচ্ছেন। তিনি জানিয়েছেন, চীনও এমন প্রকল্প নিয়ে কাজ করছে। খবর: রয়টার্স।

লিবরার বিষয়ে আলোচনা করতে গতকাল বুধবার হাউজ ফিনান্সিয়াল সার্ভিসেস কমিটির মুখোমুখি হওয়ার কথা জাকারবার্গের। শুনানির আগে তার প্রস্তুতকৃত বক্তব্যের কিছু তথ্য বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। ফেসবুক-প্রধানের দাবি, ভবিষ্যতে এমন ডিজিটাল লেনদেন ব্যবস্থা গুরুত্বপূর্ণ হবে।

তিনি বলেন, ‘যদি যুক্তরাষ্ট্র এতে নেতৃত্ব না দেয়, তবে অন্যরা দেবে। বিদেশি প্রতিষ্ঠানগুলো বা অন্যান্য দেশ হয়তো একই নীতিমালা বা স্বচ্ছতার অঙ্গীকারের মধ্যে পড়বে না, যা আমাদের ওপর আছে।’ ফেসবুক-প্রধান আরও বলেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশ কারও অপেক্ষায় বসে নেই। কয়েক মাসের মধ্যেই একই ধরনের প্রকল্প চালু করতে চীন দ্রুত এগোচ্ছে। লিবরার বেশিরভাগই ডলার দিয়ে চালানো হবে এবং আমি মনে করি, এতে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক নেতৃত্বের পরিধির পাশাপাশি আমাদের গণতান্ত্রিক মূল্যও বাড়বে। যদি যুক্তরাষ্ট্র উদ্ভাবন না করে, তবে আমাদের অর্থনৈতিক নেতৃত্বের নিশ্চয়তা থাকবে না।’

সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বজুড়ে নীতিনির্ধারকদের তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছে ফেসবুকের লিবরা। এ প্রকল্পের জবাবদিহির জন্য জাকারবার্গকে ডেকেছে মার্কিন হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভস। মার্কিন হাউজ সার্ভিসেস কমিটির মুখোমুখি হচ্ছেন জাকারবার্গ। প্রস্তাবিত লিবরা ও ডিজিটাল ওয়ালেট সেবার ব্যাখ্যা জানতে চেয়ে চলতি বছরের জুলাই মাসে ফেসবুককে চিঠি দিয়েছিলেন ওই কমিটির প্রধান ম্যাক্সিন ওয়াটার্স। এরই মধ্যেই লিবরা প্রকল্পকে ‘বিভ্রান্তিকর’ ও ‘বিপজ্জনক’ বলেছেন মার্কিন আইনপ্রণেতারা।

জাকারবার্গ বলেন, ‘আমি বুঝতে পেরেছি লিবরা প্রকল্প এবং এতে ফেসবুকের ভূমিকা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন কিছু ব্যক্তি। আমরা খুব দ্রুত এগোচ্ছি বলেও কিছু ব্যক্তি উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি। তাই পরিষ্কার করতে চাই যে, মার্কিন নীতিনির্ধারকদের অনুমোদন ছাড়া বিশ্বের কোথাও লিবরা লেনদেন ব্যবস্থা চালু করার অংশ হতে চায় না ফেসবুক।’

ক্রিপ্টোকারেন্সি চালু করতে ২৮ প্রতিষ্ঠান নিয়ে লিবরা অ্যাসোসিয়েশন গঠন করে ফেসবুক। সম্প্রতি এই অ্যাসোসিয়েশন ছেড়েছে পেইপাল, ভিসা, মাস্টারকার্ড ও ইবেসহ সাত সদস্য। সামনের বছর জুন মাসে এই ক্রিপ্টোকারেন্সি চালুর পরিকল্পনা ছিল ফেসবুকের।

সর্বশেষ..