স্পোর্টস

যে কারণে পাকিস্তান সফরে যাচ্ছেন না মুশফিক

ক্রীড়া প্রতিবেদক : গত বিশ্বকাপের পর থেকেই রয়েছেন টানা খেলার মধ্যে। স্বাভাবিকভাবেই বিশ্রাম প্রয়োজন মুশফিকুর রহিমের। গেল ভারত সফরেই ব্যাপারটি নিজেই উপলব্ধি করেছিলেন এ ডানহাতি। ওই সময়ই তাই মাহবুব হামিদকে তিনি জানিয়ে ছিলেন বিপিএলের পরই কিছুদিন ব্যাট-বল থেকে দূরে থাকবেন। এদিকে আবার আগামী ২৪ জানুয়ারি চাচাতো বোন জৌসিকা হামিদের বিয়ে। পারিবারিক এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে চান মুশি। যে কারণে সাবেক এ অধিনায়ক বাংলাদেশের আসন্ন পাকিস্তান সফরে যাচ্ছেন না।

এর আগেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়ে ছিলেন, পাকিস্তান সফরে আগ্রহ নেই মুশফিকের। কিন্ত কি কারণে পাকিস্তান সফরে যাবেন না তিনি সে ব্যাপারে কোনো কিছু খোলাসা করতে পারেননি। যদিও তখন পর্যন্ত পাকিস্তান সফরের চূড়ান্ত কোনো সূচি জানা যায়নি।

বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর অবশ্য চূড়ান্ত হয়েছে গত মঙ্গলবার আইসিসি সভা শেষে। সেখানে দুই বোর্ডে বস ব্যাপারটি নিয়ে আইসিসির সভাপতির সঙ্গে আলোচনা করেন। এরপরই সব পরিষ্কার হয়। এবার টাইগাররা পাক সফর করবে তিন ধাপে। প্রথমে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি খেলবে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। এরপরের ধাপে একটি টেস্ট খেলবে মুমিনুল হকের দল। তৃতীয় ধাপে একটি ওয়ানডে আর সিরিজের শেষ টেস্টে মুখোমুখি হবে টাইগাররা।    

আগামী ২৪ জানুয়ারি সফরের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। তাই ২২ জানুয়ারি দেশ ত্যাগ করবে টাইগাররা।

পাকিস্তান সফরে নাকি অনেকেই যেতে চাইছিলেন না। কিন্তু এ সফর নিশ্চিত হওয়ার পর ক্রিকেটার থেকে শুরু করে কোচিং স্টাফদের মতে পরিবর্তন এসেছে। তবে মুশফিক কেন পাকিস্তানে যেতে আগ্রহী নয়, এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তার বাবা মাহবুব হামিদ বলেন, ‘বাংলাদেশ যখন ভারত সফর করেছিলও তখনই মুশফিক আমাকে জানিয়েছিলও বিপিএলের পর সে কিছুদিন বিশ্রাম নিতে চায়। সে মোতাবেক তার চাচা মুকছেদ হামিদের মেয়ের বিয়ে ঠিক করা হয় ১০ জানুয়ারি। পরে সেই তারিখ পিছিয়ে করা হয় ১৭ জানুয়ারি। কিন্তু মুশফিকের খুলনা টাইগার্স বিপিএলের ফাইনালে উঠায় বিয়ের তারিখ আরেক ধাপ পিছিয়ে নির্ধারণ করা হয় ২৪ জানুয়ারি।’

পাকিস্তান সফরে যাবেন না বলে এরই মধ্যে মুশফিকুর নিজের নাম তুলে নেওয়ার জন্য আবেদন জানিয়ে ফোন করেন প্রধান  নির্বাচককে। সে কথা ক’দিন আগেই জানিয়েছেন মিনহাজুল আবেদিন নান্নু, ‘মুশফিক আমাকে ফোন করেছিল যে সে পাকিস্তানে যেতে চায় না। আমরা এখন তার আনুষ্ঠানিক চিঠির অপেক্ষায় আছি। সে চিঠি দিলেই এ সিরিজ থেকে তাকে বিবেচনায় রাখব না।’

এ বছরের অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় বসবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তাই পাকিস্তান সফর দিয়েই বৈশ্বিক এ আসরের প্রস্তুতি শুরু করতে চাইছে টিম টাইগার্স। কিন্তু তার আগেই এ সফর থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। স্বাভাবিকভাবেই তার মতো ক্রিকেটার না থাকায় একটু হলেও চিন্তিত বিসিবি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..