প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

যৌথ প্রযোজনার পক্ষে শর্মিলা ঠাকুর

শোবিজ ডেস্ক: বয়সটা ৭০-এর কোঠায়। তাতে কী! এখনও তার সৌন্দর্য ম্লান করে দেয় চারপাশ। গত শনিবার সন্ধ্যায় মঞ্চ আলোকিত করে সামনে এলেন কিংবদন্তি অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর। ঘড়িতে তখন রাত ৮টা ৫০ মিনিট। রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টার। খাস বাংলায় উচ্চারণ করলেনÑ‘ঢাকা আমার খুব প্রিয় শহর।’ এরপর কথা চললো অনেকক্ষণ।

শর্মিলা ঠাকুর বলেন, ‘শিল্পীদের কোনো সীমানা নেই। শিল্পেরও নেই। আমরা তাই আদান-প্রদান করতেই পারি। এ দেশের শিল্পী আমাদের ওখানে যাক, পাশাপাশি আমাদের শিল্পীরা এখানে কাজ করুক। যৌথ উদ্যোগে ভালো কিছু নির্মিত হোক। দুদেশের সীমান্তের কাঁটাতার এই আদান-প্রদানে যেন বাধা হয়ে না দাঁড়ায়। আমাদের সম্পর্কটা আরও গভীর হোক।’

বাংলাদেশে আসার অভিজ্ঞতা নিয়ে তিনি বলেন, ‘এ দেশে বহুবার এসেছি। মনে হয় নিজের পরিচিত জায়গায় এলাম। খুব ভালো একটা অনুভূতি কাজ করে। মনেই হয় না অন্য দেশে এসেছি, মনে হয় নিজের ঘরে আছি।’

‘শর্মিলা ঠাকুর-জিৎ গাঙ্গুলি লাইভ ইন ঢাকা’ শিরোনামের এ অনুষ্ঠানে অংশ নেন তিনি। সাইফ, সোহা আলী খানের মা ও কারিনা কাপুরের শাশুড়ি শর্মিলা কথা বলেন নিজের নানা অভিজ্ঞতা নিয়ে।

অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন দেবাশীষ বিশ্বাস ও কণ্ঠশিল্পী লাহনা সাহা। প্রথম পর্বে ছিল শর্মিলা ঠাকুরের অভিনয় করা বিভিন্ন গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশনা। গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করেন অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী তারিন, চাঁদনী ও নাদিয়া। সঙ্গে ছিলেন নৃত্যশিল্পী সোহাগ ও তার দল। মঞ্চের প্রথম সারিতে বসে তা বেশ উপভোগ করেন শর্মিলা ঠাকুর। এদিকে অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশনা করেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক ও কণ্ঠশিল্পী জিৎ গাঙ্গুলি। বাংলা ও বলিউডের সিনেমার গান শোনান তিনি। তার সহশিল্পী ছিলেন ভারতের দোয়েল গোস্বামী।