কৃষি কৃষ্টি

রঙিন ইতিহাস

গোলাপের রয়েছে দীর্ঘ ও রঙিন ইতিহাস। প্রেম, সৌন্দর্য, শান্তি ও যুদ্ধসহ নানা বিষয়ের প্রতীক বহন করছে গোলাপ। জীবাশ্ম অনুযায়ী এ ফুলের জন্ম ৩৫ লাখ বছর আগে।

পাঁচ হাজার বছর আগে চীনে গোলাপের চাষ শুরু হয়। রোমান শাসনামলে মধ্যপ্রাচ্যে এর বিস্তৃতি ঘটে। সে সময় বিভিন্ন উৎসব উদ্যাপনের পাশাপাশি ঔষধি উপাদান ও পারফিউম তৈরির উৎস হিসেবে গোলাপের প্রচলন ছিল। তখনকার দিনে দক্ষিণ রোমের সবচেয়ে বড় বাগানের আভিজাত্য ফুটিয়ে তুলত গোলাপ।

রোমান সাম্রাজ্যের পতনের পর গোলাপের পরিচিতি বাড়ে। পাশাপাশি বাগান করার প্রবণতাও বেড়ে যায়। ইংল্যান্ডের দুই শহরের যুধ্যে যুদ্ধ চলাকালে ১৫ শতকে সাদা ও লাল দু’ধরনের গোলাপ ব্যবহƒত হয়। সে সময় সাদা গোলাপ ইয়র্ক-এর প্রতীক বহন করত আর ল্যানচেস্টারের প্রতীক বহন করত লাল গোলাপ। মূলত তখন যুদ্ধের ফুল হিসেবে পরিচিতি পায় গোলাপ।

১৭ শতকের দিকে গোলাপের দাম অনেক বেড়ে যায়। গোলাপ ও গোলাপের পানি ছিল রাজকীয়তার নিদর্শন। তখনকার দিনে বিনিময়ের মাধ্যম হিসেবেও ব্যবহৃত হতো গোলাপ।

প্রাচীনকাল থেকে গোলাপকে পবিত্র ফুল হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে। প্রাচীন মিসরীয় দেবী আইসিস, গ্র্রিক প্রেমের দেবী আফ্রোদিতি ও প্রাচীন রোমের ভালোবাসার দেবী ভেনাসের কাছে গোলাপ ছিল পবিত্র। তাই ভ্যালেন্টাইনস ডে’তেও গোলাপের গুরুত্ব অপরিসীম।

গ্রিক পুরাণ অনুযায়ী আফ্রোদিতি হচ্ছেন প্রেমের দেবী। ধারণা করা হয়, আফ্রোদিতির কান্না ও তার প্রেমিক অ্যাডোনিসের রক্ত গোলাপকে জীবন দিয়েছে। খ্রিষ্টধর্মমতে, মেরির কুমারীত্বের প্রতীক মনে করা হয় গোলাপকে।

ফরাসি সম্রাট নেপোলিয়নের স্ত্রী জোসেপিন ১৮০০ সালের দিকে তার রাজপ্রাসাদ-সংলগ্ন বাগানে নানা প্রজাতির গোলাপের চাষ করেছিলেন। ১৮২৪ সালে বিখ্যাত উদ্ভিদবিদ ও চিত্রশিল্পী পিয়েরে জোসেফ রিদোতে ছবি আঁকার জায়গা হিসেবে বেছে নেন এ বাগানটি। তিনি জলরঙের বিশাল সংগ্রহ ‘লেস রোজ’ সম্পন্ন করেন এখানে। আজও রিদোতের আঁকা ছবিগুলো বোটানিক্যাল ইলাস্ট্রেশনের অন্যতম সেরা কাজ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

বিশ্বের সবচেয়ে দামি গোলাপ হচ্ছে জুলিয়েট। বিখ্যাত গোলাপ উৎপাদক ডেভিড অস্টিন ২০০৬ সালে এ ধরনের গোলাপ চাষ শুরু করেন। জুলিয়েট গোলাপের ফলন পেতে সময় লেগেছে ১৫ বছর। আর এতে খরচ হয়েছিল ৫০ লাখ ডলার। এ ধরনের গোলাপ চাষ সবচেয়ে ব্যয়বহুল।

আদিনিবাস এশিয়ায় হলেও অল্প কিছু প্রজাতির গোলাপের আদিবাস ইউরোপ, উত্তর আমেরিকা ও উত্তর পশ্চিম আফ্রিকায়। ফুলের সৌন্দর্য ও সুবাসের জন্য গোলাপ বিশ্বজুড়ে বিখ্যাত।

 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..