প্রচ্ছদ শেষ পাতা

রপ্তানিমুখী এসএমই শিল্পের সংজ্ঞা নির্ধারণ বাংলাদেশ ব্যাংকের

নিজস্ব প্রতিবেদক: তৈরি পোশাক ও বস্ত্র খাতের প্রতিষ্ঠান রপ্তানির বিপরীতে নগদ প্রণোদনা পায়। ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই) কেও এ খাতের আওতায় আনা হয়েছে। কিন্তু প্রণোদনা দিতে রপ্তানিমুখী এসএমই শিল্পের সংজ্ঞা নির্ধারণ করল বাংলাদেশ ব্যাংক। নতুন সংজ্ঞা অনুযায়ী, পাঁচ মিলিয়ন ডলার পর্যন্ত রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানকে এসএমই হিসেবে বিবেচনা করবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

গতকাল এ-সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। সেখানে উল্লেখ করা হয়, কোনো অর্থবছরে সর্বোচ্চ পাঁচ মিলিয়ন বা ৫০ লাখ ডলার পর্যন্ত সমমূল্যের পণ্য রপ্তানি করবে তাদের এসএমই শিল্পপ্রতিষ্ঠান হিসেবে বিবেচনা করা হবে। প্রণোদনার নগদ অর্থ সহায়তা শুধু তারাই পাবে।

তৈরি পোশাক ও বস্ত্র খাতের (নিট, ওভেন ও সোয়েটার) এসব প্রতিষ্ঠানই রপ্তানির বিপরীতে সরকারি প্রণোদনা পাবে। এ জন্য প্রণোদনা অর্থ পাওয়ার জন্য তারা আবেদন করতে পারবে। তবে বৃহৎ কোনো গ্রুপ বা শিল্পপ্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন কোনো এসএমই প্রতিষ্ঠান এ ঘোষণার আওতায় আসবে না। প্রজ্ঞাপনে আরও উল্লেখ করা হয়, কোনো অর্থবছরে প্রতিষ্ঠানের রপ্তানি পণ্য শূন্য হলে পরবর্তী অর্থবছরে নগদ সহায়তা পাবে না।

প্রজ্ঞাপনটি বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনে নিয়োজিত অনুমোদিত ডিলার ব্যাংকে পাঠানো হয়। প্রসঙ্গত, তৈরি পোশাক ও বস্ত্র খাতের রপ্তানিমুখী এসএমই প্রতিষ্ঠানকে পণ্য রপ্তানির বিপরীতে এক শতাংশ হারে প্রণোদনা দেওয়া হয়। তবে পণ্য নিজস্ব কারখানায় উৎপাদিত হতে হবে। ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে জাহাজীকরণ সব পণ্যের বিপরীতে এ সহায়তা দেওয়া হবে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ »

সর্বশেষ..