প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

রপ্তানি আয়ে ৫২ বিলিয়ন ডলারের মাইলফলক

নিজস্ব প্রতিবেদক: বছরজুড়ে উচ্চপ্রবৃদ্ধির ধারা বজায় থাকায় দেশের পণ্য রপ্তানি খাত প্রথমবারের মতো ৫২ বিলিয়ন ডলারের মাইলফলক অতিক্রম করেছে; রপ্তানি আয়ে মোট প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৩৪ দশমিক ৩৮ শতাংশ।

গতকাল রোববার সদ্য সমাপ্ত ২০২১-২০২২ অর্থবছরের পণ্য রপ্তানির প্রাথমিক তথ্য প্রকাশ করেছে রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি)। এতে দেখা যায়, গত অর্থবছরের ১২ মাসে বাংলাদেশে থেকে পাঁচ হাজার ২০৮ কোটি ২৬ লাখ ডলারের পণ্য রপ্তানি হয়েছে, যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৯ দশমিক ৭৩ শতাংশ এগিয়ে ও আগের অর্থবছরের চেয়ে ৩৪ দশমিক ৩৮ শতাংশ বেশি।

এর আগে ২০২০-২০২১ অর্থবছরে সর্বসাকুল্যে তিন হাজার ৮৭৫ কোটি ৮৩ লাখ ডলারের পণ্য রপ্তানির ওপর ভিত্তি করে পরের বছরের জন্য চার হাজার ৩৫০ কোটি ডলারের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল। খাত-সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বাংলাদেশের পণ্য রপ্তানির ইতিহাসে এটাই সর্বোচ্চ আয়; বছরজুড়ে প্রবৃদ্ধিও অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি।

রপ্তানির সার্বিক পরিস্থিতি দেখে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, পরিকল্পিতভাবে রপ্তানি বাড়ানোর যে প্রচেষ্টা ছিল এটা তারই সুফল। প্রধানমন্ত্রী রপ্তানি খাতের ওপর অব্যাহত নজর রেখেছিলেন। কভিড-পরবর্তী সময়ে সার্বিক অবস্থাটা ভালো ছিল, সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা ছিল। আমাদের রপ্তানিটা বেড়েছে, নতুন নতুন অনেক আইটেম বিলিয়ন ডলারের ঘর অতিক্রম করছে। এ বছর আশা করছি আরও ইমগ্রুভ করবে। আমরা সেবা ও পণ্য মিলিয়ে ৫১ বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা ধরেছিলাম। সেটা এখন ৬০ বিলিয়নের ঘরে এসে থেমেছে।

তিনি বলেন, এর মধ্যে পণ্য রপ্তানি থেকে এসেছে ৫২ বিলিয়ন আর সেবা রপ্তানি থেকে এসেছে ৮ বিলিয়ন ডলার। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রায় ১৮ শতাংশ বেশি হয়েছে যেটা আসলেই একটা ভালো খবর। এ বছর আমরা ৬৫ বিলিয়ন ডলারের একটা লক্ষ্য ঠিক করতে চাচ্ছি।