কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

রবি আজিয়াটার শেয়ারদর বেড়েছে ৪৭.২৭%

সাপ্তাহিক বাজার

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) রবি আজিয়াটা লিমিটেড গত সপ্তাহে দর বৃদ্ধির তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ৪৭ দশমিক ২৭ শতাংশ। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্রমতে, গত সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন গড় লেনদেন হয়েছে ১১৬ কোটি ১৭ লাখ ৪০০ টাকার শেয়ার। সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৫৮০ কোটি ৮৫ লাখ দুই হাজার টাকা।

এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে কোম্পানিটির শেয়ারদর ৯ দশমিক ৮৭ শতাংশ বা ছয় টাকা ৩০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ৭০ টাকা ১০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দরও ছিল ৭০ টাকা ১০ পয়সা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৬৯ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৭০ টাকা ১০ পয়সায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ১৫ টাকা থেকে ৭০ টাকা ১০ পয়সায় ওঠানামা করে।

সম্প্রতি পুঁজিবাজারে আসা কোম্পানিটির ৬ হাজার কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন পাঁচ হাজার ২৩৭ কোটি ৯৩ লাখ টাকা। কোম্পানির রিজার্ভের পরিমাণ এক হাজার ২৩৬ কোটি দুই লাখ টাকা। কোম্পানিটির মোট ৫২৩ কোটি ৭৯ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩৫টি শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা বা পরিচালকদের ৯০ দশমিক ০৫ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর ২ দশমিক ৪২ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে বাকি ৭ দশমিক ৫৩ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেড। ‘বি’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ৩৩ দশমিক ২৩ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ১৬২ কোটি ৪৪ লাখ ২৩ হাজার ২০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৮১২ কোটি ২১ লাখ ১৬ হাজার টাকার শেয়ার।

তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেড। ‘এ’ ক্যাটেগরির এ কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ২৬ দশমিক ৬২ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ৭৮ কোটি ৮৯ লাখ ২২ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৩৯৪ কোটি ৪৬ লাখ ১০ হাজার টাকার শেয়ার।

সম্প্রতি সিমেন্ট খাতের এ কোম্পানিটি গত ৯ জানুয়ারি থেকে আন্তর্জাতিক মানের স্বচ্ছ গ্রেডেড চুনাপাথরের বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করেছে। সুনামগঞ্জের ছাতকে অবস্থিত কোম্পানিটির কারখানা প্রাঙ্গণে ৪০ কোটি ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি দিয়ে ক্রাশিং ইউনিট স্থাপন করা হয়েছে। এই ইউনিটে কোম্পানিটি বছরে প্রায় ১২ লাখ টন স্বচ্ছ গ্রেডেড চুনাপাথর উৎপাদন করতে পারবে। আর লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশের নিজস্ব তহবিল থেকে অর্থায়নের মাধ্যমে এই প্রকল্প সম্পন্ন করা হয়েছে।

২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে কোম্পানিটি। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে এক টাকা ৫০ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৩ টাকা ৯৫ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে তিন টাকা ৫২ পয়সা।

এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশের শেয়ারদর ৮ দশমিক ৭৩ শতাংশ বা পাঁচ টাকা ৫০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ৬৮ টাকা ৫০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৬৮ টাকা ৫০ পয়সা। দিনজুড়ে এক কোটি ২০ লাখ ১১ হাজার ৬৪২টি শেয়ার মোট ৬ হাজার ৯৪৯ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৮০ কোটি ৬৬ লাখ ৮০ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৬৫ টাকা থেকে ৬৮ টাকা ৯০ পয়সায় লেনদেন হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ৩২ টাকা ৪০ পয়সা থেকে ৬৮ টাকা ৯০ পয়সায় ওঠানামা করে।

এর পরের অবস্থানে থাকা ‘এ’ ক্যাটেগরির আলিফ ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ২৪ দশমিক ৬৯ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ১১ কোটি ২৭ লাখ ৫২ হাজার ৮০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৫৬ কোটি ৩৭ লাখ ৬৪ হাজার টাকার শেয়ার।

এর পরের অবস্থানে থাকা ‘এ’ ক্যাটেগরির বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ২২ দশমিক ৩৫ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ৯ কোটি ৭৪ লাখ তিন হাজার ৮০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৪৮ কোটি ৭০ লাখ ১৯ হাজার টাকার শেয়ার। আর ষষ্ঠ অবস্থানে থাকা ‘এ’ ক্যাটেগরির সামিট পাওয়ার লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ২২ দশমিক ০৯ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ৪০ কোটি ৭২ লাখ ৫৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ২০৩ কোটি ৬২ লাখ ৯৫ হাজার টাকার শেয়ার।

সপ্তম অবস্থানে থাকা ‘এ’ ক্যাটেগরির এশিয়া ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ২১ দশমিক ০৯ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন তিন কোটি ১৯ লাখ ৮৭ হাজার ৮০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ১৫ কোটি ৯৯ লাখ ৩৯ হাজার টাকার শেয়ার।

এর পরের অবস্থানে থাকা ‘এ’ ক্যাটেগরির বিএসআরএম স্টিল লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ২০ দশমিক ৪৯ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ৫ কোটি ৩ লাখ ৫৮ হাজার ৮০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ২৫ কোটি ১৭ লাখ ৯৪ হাজার টাকার শেয়ার। পরের অবস্থানে থাকা ‘বি’ ক্যাটেগরির এপোলো ইস্পাত কমপ্লেক্স লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ১৮ দশমিক ৬৭ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ৯ কোটি ৪০ লাখ ৬৮ হাজার ৬০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৪৭ কোটি ৩ লাখ ৪৩ হাজার টাকার শেয়ার। তালিকার সর্বশেষ অবস্থানে থাকা থাকা ‘এ’ ক্যাটেগরির আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ১৮ দশমিক ৪৫ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ২৪ কোটি ৬৫ লাখ ৬৩ হাজার ৪০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ১২৩ কোটি ২৮ লাখ ১৭ হাজার টাকার শেয়ার।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..