রাইট শেয়ার ইস্যু করবে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাইট শেয়ার ইস্যুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক খাতের কোম্পানি ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, ব্যাংক খাতের কোম্পানিটি পরিশোধিত মূলধন বাড়ানোর লক্ষ্যে রাইট শেয়ার ইস্যু করবে। দুটি সাধারণ শেয়ারের বিপরীতে একটি রাইট শেয়ার ইস্যু করবে ব্যাংকটি। যেখানে প্রতিটি সাধারণ শেয়ারের অভিহিত মূল্য ১০ টাকা। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন সাপেক্ষে রাইট শেয়ার ইস্যু করতে পারবে ব্যাংকটি। রাইট শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ব্যবসায়িক প্রবৃদ্ধি ও মূলধন শক্তিশালী করবে ব্যাংকটি। আর এ সিদ্ধান্ত বিনিয়োগকারীদের অনুমোদনের জন্য আগামী ২৭ অক্টোবর সকাল ১০টায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে বিশেষ সাধারণ সভার (ইজিএম) আহ্বান করা হয়েছে। এ-সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৬ অক্টোবর। তাছাড়া বিএসইসির অনুমোদনের পর প্রস্তাবিত রাইট শেয়ার ইস্যু-সংক্রান্ত আরেকটি রেকর্ড ডেট ঘোষণা করবে ব্যাংকটি।

২০০৮ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয় ‘এ’ ক্যাটেগরির প্রতিষ্ঠানটি। এক হাজার কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৯৯৬ কোটি ১৯ লাখ টাকা। কোম্পানিটির মোট ৯৯ কোটি ৬১ লাখ ৯৮ হাজার ২১১টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসই থেকে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্যমতে মোট শেয়ারের ৩৩ দশমিক ৩৪ শতাংশ উদ্যোক্তা বা পরিচালক, প্রতিষ্ঠানিক ২০ দশমিক ৬৩ শতাংশ, বিদেশি এক দশমিক ৭৫ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৪৪ দশমিক ২৮ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য ব্যাংক খাতের কোম্পানিটি পাঁচ শতাংশ ও পাঁচ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে দুই টাকা ৯৩ পয়সা এবং ৩১ ডিসেম্বর তারিখে শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৮ টাকা ৯১ পয়সা।

এদিকে সম্প্রতি চলতি হিসাববছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড। আর এ প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) বেড়েছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের দ্বিতীয় প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন, ২০২১) ইপিএস হয়েছে ২২ পয়সা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ১৬ পয়সা। অর্থাৎ, ইপিএস বেড়েছে ছয় পয়সা। আর প্রথম দুই প্রান্তিক বা ছয় মাস (জানুয়ারি-জুন, ২০২১) শেষে ইপিএস দাঁড়িয়েছে ৫৪ পয়সা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ৮২ পয়সা। এছাড়া ২০২১ সালের ৩০ জুন তারিখে শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ১৯ টাকা ৪৬ পয়সা, যা ২০২০ সালের ৩০ জুনে ছিল ১৭ টাকা ছয় পয়সা।

সর্বশেষ..