প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

রাজধানীতে শুরু কন-এক্সপো

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিদ্যুৎ, সৌর, পানি, নির্মাণ, আবাসন এবং নিরাপত্তা খাতের আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী গতকাল রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে উদ্বোধন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। এতে তিনটি দেশের ২৫টি শীর্ষস্থানীয় কোম্পানি নিজেদের উৎপাদিত পণ্য এবং বিভিন্ন সেবা তুলে ধরে।

অ্যাগরেগেট বা পাথরকুচি উৎপাদন ও সরবরাহ, রেডিমিক্স ও শিল্পপর্যায়ে পরিবহন খাতে শীর্ষস্থানীয় নির্মাণসামগ্রীর নির্মাতা ওরিক্স ইন্ডাস্ট্রিজ তাদের ২০ বছরের সাফল্যের ইতিহাসে এ প্রথমবারের মতো এ প্রদর্শনীতে অংশ নিয়ে (হল-২, স্টল-২৯) নিজেদের পণ্যসামগ্রী তুলে ধরছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের বৃহত্তম পাথর চ‚র্ণকারী উদ্যোগ ওরিক্সের বাংলাদেশে এজেন্ট ও পরিবেশক বিখ্যাত শেঠ প্রপার্টিজের সিস্টার প্রতিষ্ঠান এম আলম অ্যান্ড কোম্পানি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গণমাধ্যম ও ব্যবসায়ী প্রতিনিধি ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন শেঠ গ্রুপ অব কোম্পানিজের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার মো. আফতাব আলম এবং ওরিক্স ইন্ডাস্ট্রিজ ও ওরিক্স ক্রাশারের প্রতিনিধিত্বকারী এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট আবদুল ওয়াসে।

ওরিক্সের পাথরকুচির উন্নত গুণগত মানের আলোকপাত করে আফতাব বলেন, বর্তমান সরকার দেশের দীর্ঘমেয়াদি উন্নয়নের লক্ষ্যে অবকাঠামোগত বিনির্মাণে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে। এক্ষেত্রে আমাদের উৎপাদিত পণ্যের মাধ্যমে নিশ্চিত হতে পারে নির্মাণকাজের স্থায়িত্ব ও নির্ভরযোগ্যতা।

বিভিন্ন ধরনের নির্মাণকাজের জন্য বিভিন্ন ধরনের পাথরকুচির গুরুত্ব ও কার্যকারিতা ব্যাখ্যা করে ওয়াসে বলেন, আমাদের পণ্য বাংলাদেশের বুয়েট ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, ভারত ও যুক্তরাজ্যের মান নিয়ন্ত্রণ সংস্থা কর্তৃক যাচাইকৃত ও অনুমোদিত। এ শিল্পের আপসহীন দক্ষতার নিশ্চয়তা দিচ্ছে ওরিক্সের ক্রাশড অ্যাগ্রেগেট।

তিন দিনের এ আয়োজনে মোট ছয়টি প্রদর্শনী চলছে। এগুলো হচ্ছে ২১তম কন এক্সপো বাংলাদেশ, ১৯তম পাওয়ার বাংলাদেশ এক্সপো, ১৪তম সোলার বাংলাদেশ এক্সপো, ১৮তম রিয়েল এস্টেট এক্সপো এবং দ্বিতীয় ইন্টারন্যাশনাল সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি বাংলাদেশ এক্সপো।

বাংলাদেশের আবাসন খাতের বৃহত্তম এ আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী চলবে কাল পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত সবার জন্য খোলা থাকবে।