Print Date & Time : 6 May 2021 Thursday 3:41 am

রাজশাহীতে তিন দিনে পেঁয়াজের দাম কেজিতে বাড়ল ১০ টাকা

প্রকাশ: March 9, 2021 সময়- 01:25 am

প্রতিনিধি, রাজশাহী: রাজশাহীতে মাত্র তিন দিনের ব্যবধানে কেজিতে ১০ টাকা বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। পাইকারি বাজারে প্রতি কেজিতে বেড়েছে আট থেকে ৯ টাকা। দাম বাড়ার কারণ হিসেবে পাইকারি ব্যবসায়ীরা বলছেন, বাজারে পেঁয়াজের আমদানি অনেকটা কমে যাওয়ায় দাম বেড়েছে। মুড়িকাটা পেঁয়াজ শেষপর্যায়ে। নতুন পেঁয়াজ আসার আগে দাম বাড়তেই পারেÑএমনই মন্তব্য তাদের।

অবশ্য পাইকারি ব্যবসায়ীদের এ মত মানতে নারাজ খুচরা ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, চলতি সপ্তাহের শনিবার থেকে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। দুই দিনের মধ্যে ২৫ টাকা কেজির পেঁয়াজ একলাফে ৩৫ টাকা হয়েছে। প্রতি বছর রমজানে পেঁয়াজের দাম বাড়ানো হয়। এতে প্রতি বছর প্রশ্ন তোলা হয়। এ কারণে রোজার সময় দাম বৃদ্ধি নিয়ে প্রশ্ন তোলার আগেই এবার দাম বাড়ানো হচ্ছে বলে ধারণা করছেন তারা।

রাজশাহীর সাহেববাজার মাস্টারপাড়া এলাকার পেঁয়াজ ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম বলেন, খুচরা বাজারে ১৮০ টাকা পাল্লা বিক্রি করছি। এক কেজি ৩৫ টাকা দরে বিক্রি করছি। শনিবার হঠাৎ দাম বেড়ে গেল। এর আগে পাইকারিতে এক মণ পেঁয়াজের দাম ছিল ৮০০ টাকা, যা বেড়ে দাঁড়ায় ১৩০০ টাকায়।

তিনি আরও বলেন, দিনে চার থেকে পাঁচ মণ পেঁয়াজ বিক্রি করতাম। আগে জানলে কয়েক মণ বেশি কিনে রাখলে কাজে আসত।

রসুনের দাম আগের মতোই রয়েছে। ৬০ টাকা কেজি। পেঁয়াজের দাম আরও বাড়ার সম্ভাবনা আছে কি নাÑজানতে চাইলে ব্যবসায়ীরা বলেন, পেঁয়াজের সরবরাহ কিছুটা কমেছে।

প্রতি বছর রোজায় মসলা জাতীয় পণ্যের দাম বেড়ে যায়। এবার উল্টো হতে পারে। নতুন পেঁয়াজ আসতে আর ১৫ থেকে ২০ দিন বাকি। সেক্ষেত্রে রোজায় দাম খুব একটা বাড়বে বলে মনে হয় না। তবে আগাম কিছু বলা যায় না।

আরেক ব্যবসায়ী আবু বক্কার বলেন, রোজা আসলে পেঁয়াজের দাম হয়ত বাড়তে পারে। তবে নতুন পেঁয়াজ আসার আগ মুহূর্তে পেঁয়াজের কেজি ৫০ টাকা হওয়ার জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে। তিন দিনে বেড়েছে ১০ টাকা। আগামী তিন থেকে চার দিনে ৪০ টাকা পেরিয়ে যেতে পারে। পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণে বিক্রি কমে গেছে বলেও জানান আরেক পেঁয়াজ ব্যবসায়ী।

দাম বাড়তে পারে এমনই আভাস দিয়েছে পাইকারি পেঁয়াজ বিক্রেতারা। তারা বলছেন, পেঁয়াজের দাম বাড়ার তেমন কোনো কারণ নাই। তবে দেশি পেঁয়াজ মানুষের খাবারের মূল জায়গায় রয়েছে। ভারতীয় পেঁয়াজে ক্রেতাদের আগ্রহ নেই। তবে দেশি পেঁয়াজের দাম আরেকটু বাড়লে ভারতীয় পেঁয়াজ টানবে বলে মনে হচ্ছে।

তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় এ পণ্যের দাম বাড়ায় খুশি রাজশাহীর পেঁয়াজ চাষিরা। তারা বলছেন, উৎপাদন খরচের সঙ্গে বিক্রির বাজার দর মিলে গেলে লোকসান গুনতে হয়। দাম নিয়ে শঙ্কায় ছিলেন তারা। পাইকারি বাজারে ৮০০ টাকা মণ পেঁয়াজ বিক্রি করে কোনো লাভ হয় না। হঠাৎ মানভেদে ১২০০ থেকে ১৩০০ টাকা মণ দরে বিক্রি হওয়ায় হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন তারা। দাম বাড়ার কারণে কিছুটা আশার মুখ দেখছেন।