সারা বাংলা

রাজশাহী মেডিকেল থেকে চুরি হওয়া নবজাতক উদ্ধার, গ্রেপ্তার দুই

প্রতিনিধি, রাজশাহী: রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়ার ২৭ ঘণ্টা পর এক নবজাতককে উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার দুপুরে নগরীর বোয়ালিয়া থানার মোন্নাফের মোড়ের পল্টুর বস্তি থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় চুরি করে নিয়ে যাওয়া নারী ও তার স্বামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) গোয়েন্দা শাখার একটি দল এ অভিযান চালায়।

গ্রেপ্তার নারীর নাম মৌসুমি বেগম (২৩)। তার স্বামীর নাম সজীব (২৫)। তারা নগরের বোয়ালিয়া থানার রানীনগর পল্টুর বস্তিতে বসবাস করেন। নবজাতক উদ্ধারের বিষয়টি বিস্তারিত জানাতে রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) গোয়েন্দা শাখার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সেখানে সাংবাদিকদের সামনে বিস্তারিত তুলে ধরেন পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক।

তিনি বলেন, ‘আমরা প্রাথমিকভাবে যেটা জানলাম, বাচ্চা চুরি করা নারী নিঃসন্তান। আট বছর আগে বিয়ে হলেও তার সন্তান হয়নি। তবে তিনি কোনো বাচ্চা চোরচক্রের সঙ্গে জড়িত কি নাÑতা আমরা খতিয়ে দেখব। বাচ্চাটিকে ইতোমধ্যে তার নানা-নানির কাছে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। আর বাচ্চা চুরি করে নিয়ে যাওয়ার অপরাধে গ্রেপ্তার দুজনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

কন্যাশিশুর নানি তাপসী রবি দাস বলেন, ‘বাচ্চাটার নাম রাখা হয়েছে লক্ষ্মী। তারা বাচ্চাটিকে ফিরে পেয়ে খুব খুশি।’ চুরি হয়ে যাওয়া বাচ্চা ফিরে পাওয়ায় তিনি পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

শিশুটির বাবা গোপল রবি দাস নগরের আইডি বাগানপাড়া এলাকার বাসিন্দা। গত বুধবার তার স্ত্রী কমলী রবি দাস শিল্পীকে

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাতে অস্ত্রোপচারে কন্যাসন্তানের

জš§ দেন তিনি। গত বৃহস্পতিবার সকালে মৌসুমি তার কাছে গিয়ে শিশুটিকে আদর করেন। এরপর শুক্রবার সকালে তিনি আবার যান। এ সময় বাচ্চাকে ঘুমিয়ে রেখে খাবার আনতে গেলে মৌসুমি শিশুটিকে নিয়ে পালিয়ে যায়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..