বিশ্ব সংবাদ

রানির কাছে মিথ্যা বলার অভিযোগ অস্বীকার জনসনের

শেয়ার বিজ ডেস্ক: পাঁচ সপ্তাহের জন্য সংসদ মুলতবি করার বিষয়ে রানির কাছে মিথ্যা তথ্য দেননি বলে দাবি করেছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ব্রেক্সিট নিয়ে বিতর্কিত মুলতবি শুরুর পর ওঠা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এ দাবি করলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে প্রশ্নের মুখোমুখি হলে তিনি বলেন, এটা সঠিক নয়। খবর: সিএনএন, বিবিসি।
স্কটল্যান্ডের আদালত এটিকে আইনের লঙ্ঘন বলার পর এ ব্যাপারে বরিস জনসন বলেন, ইংল্যান্ডের হাইকোর্ট আমাদের সঙ্গে সম্পূর্ণ একমত এবং এ বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আমাদের রানির কথা শোনা প্রয়োজন এবং সবকিছু জাতীয় পর্যায়ে করতে হবে বলেও মন্তব্য করেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।
সব বাধাবিপত্তি সত্ত্বেও তিনি যে কোনো মূল্যে ৩১ অক্টোবরের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে ব্রিটেনকে বের করে আনতে বদ্ধপরিকর বরিস জনসন। তবে পার্লামেন্ট অধিবেশন মুলতবি করার কারণে তিনি সংসদ সদস্যদের তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন। মাত্র পাঁচ দিনের অধিবেশনে ব্রিটিশ সংসদ চুক্তিহীন ব্রেক্সিট এড়াতে আইন প্রণয়ন করেছে। বরিস জনসন সংসদের সেই আইন মানবেন কি না, তা নিয়ে সংশয় দূর হচ্ছে না।
নতুন যে মুলতবি শুরু হয়েছে, সে অনুযায়ী আগামী ১৪ অক্টোবরের আগে ব্রিটিশ আইনপ্রণেতারা মিলিত হতে পারছেন না। যদিও জনসন দাবি করেছেন, ব্রেক্সিট নিয়ে বিতর্কের জন্য যথেষ্ট সময় পাওয়া যাবে। আগামী ১৭ ও ১৮ অক্টোবরের আগেই চুক্তিতে পৌঁছানোর ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি।
এর আগে গত মঙ্গলবার তিনি নতুন ব্রেক্সিট চুক্তির লক্ষ্যে উদ্যোগ আরও জোরদার করার কথা ঘোষণা করেন। মঙ্গলবার সরকার ও বিরোধী পক্ষের কয়েকজন সংসদ সদস্য মিলে চুক্তির মাধ্যমে ব্রেক্সিট কার্যকর করার এক উদ্যোগ শুরু করেছেন। ইইউ’র সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর আলোচনা ব্যর্থ হলে বর্তমান ব্রেক্সিট চুক্তি সংসদে অনুমোদন করা যায় কি না, সেই বিষয়টি তারা খতিয়ে দেখছেন।

সর্বশেষ..