প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

রাশিয়া আড়াই কোটি টন খাদ্যশস্য রপ্তানি করবে

শেয়ার বিজ ডেস্ক: চলতি বছর আড়াই কোটি টন খাদ্যশস্য রপ্তানি করতে রাজি হয়েছে রাশিয়া। আগামী ১ আগস্ট থেকে তারা শস্য রপ্তানি শুরু করবে। খবর: তাস।

রাশিয়ার বার্তা সংস্থা তাস জানায়, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের এক বৈঠকে দেশটির স্থায়ী প্রতিনিধি ভ্যাসিলি নেবেনজিয়া বলেন, রাশিয়া এখনও খাদ্য ও জ্বালানির এক দায়িত্বশীল সরবরাহকারী। চলতি বছর আমরা রেকর্ড সর্বোচ্চ কৃষি উৎপাদন আশা করছি। সেক্ষেত্রে নোভোরোসিস্ক বন্দর দিয়ে আগামী ১ আগস্ট থেকে বছর শেষ হওয়া পর্যন্ত আড়াই কোটি টন খাদ্যশস্য রপ্তানি করতে পারি।

বিশ্বে অন্যতম প্রধান খাদ্যশস্য রপ্তানিকারক দেশ রাশিয়া। তবে ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরু করার কারণে দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেক পশ্চিমা দেশ। এতে ব্যাহত হচ্ছে রাশিয়ার শস্য রপ্তানি। ফলে বৈশ্বিক খাদ্য সরবরাহে ঘাটতি সৃষ্টি হয়েছে। বাড়ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম। তাই রাশিয়ার কর্তৃপক্ষ জানায়, নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হলে চলতি বছর আড়াই কোটি টন খাদ্যশস্য রপ্তানি করতে পারে রাশিয়া।

পশ্চিমা প্রতিনিধিদের উদ্দেশে নেবেনজিয়া বলেন, আমরা অন্যান্য কেনাকাটা নিয়েও আলোচনা করতে পারি। এর মধ্যে আগামী জুন থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে সম্ভাব্য দুই কোটি ২০ লাখ টন সার রপ্তানি করার বিষয়টি বিবেচনা করা যেতে পারে। তবে আরোপিত নিষেধাজ্ঞাগুলো প্রত্যাহারের কোনো ইচ্ছা না থাকলে এ অবস্থা থেকে সরে আসার কথাও জানান তিনি। তার মতে, বর্তমান পরিস্থিতিতে বিশ্বের খাদ্য পরিস্থিতির অবনতির জন্য রাশিয়ার ওপর দায় চাপানোর চেষ্টা অযৌক্তিক ও অন্যায়। রুশ কূটনীতিকের দাবি, ইউক্রেনের বন্দরগুলো দিয়ে শস্য রপ্তানি রাশিয়ার কারণে নয়, ইউক্রেনের কারণে বন্ধ রয়েছে। ইউক্রেন খেরসন, নিকোলায়েভ, চেরনোমর্স্ক, মারিউপোল, ওচাকভ, ইউঝনি ও ওডেসা বন্দরে ১৭টি দেশের ৭৫টি জাহাজ অবরুদ্ধ করে রেখেছে এবং জলপথে মাইন বসানোর কাজ করেছে বলে জানান তিনি।