বিশ্ব সংবাদ

রাশিয়ায় প্রথম ভাসমান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের যাত্রা

শেয়ার বিজ ডেস্ক: রাশিয়ার প্রথম ভাসমান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র ‘আকাদেমিক লোমোনসভ’ যাত্রা শুরু করেছে। বিশ্বব্যাপী এ-জাতীয় বিদ্যুৎকেন্দ্রের ক্ষেত্রে এটি অন্যতম অগ্রগণ্য একটি প্রকল্প। গত শুক্রবার দেশটির উত্তর মেরুঘেঁষা বন্দর মুরমান্সক থেকে পাঁচ হাজার কিলোমিটার দূরে আরেক বন্দর চুকোতকার উদ্দেশে আনুষ্ঠানিকভাবে এ বিদ্যুৎকেন্দ্র যাত্রা শুরু করে। খবর: বিবিসি।
রাশিয়ার পরমাণু সংস্থা রোজেনেরগোয়াতম জানায়, যাত্রাপথে উপকূলবর্তী প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে বিদ্যুৎ সরবরাহে সহায়তা করবে ‘আকাদেমিক লোমোনসভ’। এ ছাড়া এটি সোনার খনিসমৃদ্ধ চুকোতকার সাউন-বিলিবিন প্রকল্পেও বিদ্যুৎ সরবরাহ করবে।
সংবাদমাধ্যম ভেস্তি জানায়, পারমাণবিক এ বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রায় এক লাখ মানুষের কোনো শহরে আলো ও তাপ সরবরাহে সক্ষম। ৪৫৯ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৯৮ ফুট প্রস্থের বিদ্যুৎকেন্দ্রটি সুনামি মোকাবিলায় সক্ষম। এর দুটি পারমাণবিক চুল্লি রয়েছে, যার বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষতা ৮০ মেগাওয়াট। এ ছাড়া এতে রয়েছে বরফ কাটার বিশেষ ব্যবস্থা। এটি আগামী ৪০ বছর সক্রিয় থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে।
ভাসমান এ বিদ্যুৎকেন্দ্র সমুদ্রের পানি প্রক্রিয়াজাত করে খাবার পানিতে পরিণত করতেও সহায়তা করবে। এতে করে বিভিন্ন দ্বীপাঞ্চল উপকৃত হবে বলে জানায় রাশিয়া।
এদিকে ভাসমান বিদ্যুৎকেন্দ্রের এ প্রকল্পকে অত্যধিক ঝুঁকিপূর্ণ বলে অভিহিত করেছে আন্তর্জাতিক পরিবেশবাদী সংগঠন গ্রিনপিস। সোভিয়েত ইউনিয়ন ও রাশিয়ার আগেকার পরমাণু দুর্ঘটনাগুলোর প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে সংগঠনটির সমালোচকরা বলেন, এ প্রকল্প জনবিরল উত্তর মেরু অঞ্চলে পরিবেশদূষণের ঝুঁকি তৈরি করবে।

 

সর্বশেষ..