সুশিক্ষা

রাসিকের নাগরিক সেবা এখন অনলাইনে

স্মার্ট রাজশাহী

আসাদ নূর, রাজশাহী: নাগরিক সেবার মানোন্নয়নে আরেক ধাপ এগিয়ে গেল রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক)। অনলাইনে নাগরিক সেবা দিতে ‘স্মার্ট রাজশাহী’ (smartrajshahi.gov.bd) ওয়েবসাইট ও অ্যাপ চালু করেছে নগর সংস্থা। ওয়েবসাইট ও মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে ২৪টি নাগরিক সেবা পাবেন নগরবাসী। সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সহযোগিতায় প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করেছে সেলট্রন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, স্মার্ট ও আধুনিক সিটি গড়তে ‘স্মার্ট রাজশাহী’ তৈরির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এটি চালুর মধ্য দিয়ে সিটি করপোরেশনগুলোর মধ্যে রাসিকের সেবা কার্যক্রম প্রথম অটোমেশনের আওতায় এলো। অনলাইনে সেবা পাওয়ায় নাগরিক সেবার উন্নয়ন ঘটবে। বর্তমানে ২৪টি সেবা দিলেও ভবিষ্যতে এর পরিধি বাড়বে। ফলে আধুনিক ও স্মার্ট সিটি হিসেবে রাজশাহী হবে পথপ্রদর্শক।

গত সোমবার ভার্চুয়াল এক অনুষ্ঠানে ওয়েব ও অ্যাপের উদ্বোধন করেন রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সেলট্রনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ মোহাম্মদ ফাউজুল মুবিন বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন মোবাইল গেম ও অ্যাপ্লিকেশনের দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্প পরিচালক মো. আনোয়ারুল ইসলাম।

রাসিক সূত্রে জানা গেছে, এ ওয়েবসাইট ও অ্যাপের মাধ্যমে সিটি করপোরেশন সচিবালয়, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, প্রকৌশল, রাজস্ব ও স্বাস্থ্য বিভাগে অনলাইনে অ্যাকসেস করা যাবে। এ সব বিভাগের সংশ্লিষ্ট সেবা যেমন- বিরোধ নিষ্পত্তি, বিবাহ বিচ্ছেদ, আর্থিক সহযোগিতা, নাগরিক সনদপত্র, উত্তরাধিকার সনদপত্র, বিবিধ সনদপত্র, সিটি করপোরেশনের স্থান ভাড়া, ইজারা মেডিকেল রেজিস্ট্রেশন প্রভৃতি সেবার জন্য নাগরিকরা এখন থেকে অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, মশক নিয়ন্ত্রণ, ঠিকাদার লাইসেন্স নবায়ন, তালিকাভুক্ত ভূমি ব্যবহার অসম্মতি, ট্রেড লাইসেন্স, ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন, রাজস্ব সংগ্রহ, নেম সেপারেশন, হোল্ডিং ট্যাক্স, হোল্ডিং ট্যাক্স রিভিউ, হোল্ডিং ট্যাক্স পুনর্নির্ধারণ, পরিবশে দূষণ প্রতিরোধ, পোষা প্রাণীর লাইসেন্সের আবেদনও করা যাবে। শুধু আবেদনই নয় সেবার নির্ধারিত মূল্য ও অগ্রগতি যাচাই করার পাশাপাশি চূড়ান্ত সেবাও অনলাইনে পাওয়া সম্ভব হবে।

সেবার জন্য একজন নাগরিককে smartrajshahi.gov.bd ওয়েব সাইটে প্রবেশ করে নিবন্ধন করতে হবে। এই নিবন্ধনের জন্য জাতীয় পরিচয় পত্রসহ কিছু ব্যক্তিগত তথ্য দিতে হবে। একবার নিবন্ধন করলেই পরবর্তী সময়ে শুধু লগইন করে সেবা পাওয়া যাবে।

সেবা প্রাপ্তির জন্য সেবার নির্দিষ্ট মূল্য দুটি পদ্ধতিতে পরিশোধ করা যাবে। পেমেন্টে সফল হলে অনলাইল প্ল্যাটফর্মের ভেতর দিয়ে আবেদনগুলো সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের কাছে পর্যায়ক্রমে পৌঁছে যাবে। তাদের কার্যক্রম শেষ হবার পর নাগরিক সেবার জন্য চূড়ান্তভাবে বিবেচিত হলে ওই ব্যক্তি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই সেবাটি তার প্যানেল থেকে নিতে পারবেন।

নাগরিকরা তাদের ইউজার প্যানেলে লগইন করে আবেদনের অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে পারবেন। প্রত্যেকটি আবেদন পর্যায়ক্রমে সিটি করপোশেনের কোনো কর্মকর্তার টেবিলে আছে তা সিস্টেম থেকেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে জানা যাবে। কতদিনের মধ্যে পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হবে, তাও এই সিস্টেম থেকে জানা যাবে।

এ বিষয়ে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের নেতৃত্বে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য উন্নতি হয়েছে, দেশ অনেক এগিয়েছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদের নিকট বাস্তব রূপ পেয়েছে। যার ফলাফল ‘স্মাট রাজশাহী’ ওয়েবসাইট ও অ্যাপ।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..