আজকের পত্রিকা দিনের খবর প্রথম পাতা বাণিজ্য সংবাদ সর্বশেষ সংবাদ সারা বাংলা

রিটার্ন দাখিলের জন্য শুক্রবার ভ্যাট অফিস খোলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: এপ্রিল মাসের ভ্যাট রিটার্ন দাখিলের সুবিধার্থে শুক্রবার (১৫ মে) দেশের ২৫২টি ভ্যাট সার্কেল অফিস খোলা থাকবে। বিকেল ৪টা পর‌্যন্ত অফিস খোলা থাকবে। তবে যতক্ষণ পর্যন্ত করদাতা আসবে ততক্ষণ রিটার্ন জমা নেওয়া হবে।

এর আগে রোববার (১০ মে) জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) নির্দেশনা প্রদান করে। এনবিআর সদস্য (মূসক বাস্তবায়ন ও আইটি) মো. জামাল হোসেন সই করা অফিস আদেশ জারি করা হয়। আদেশে ’১৫ মে শুক্রবার করদাতাদের ভ্যাট রিটার্ন দাখিলের সুবিধার্থে ভ্যাট সার্কেলসমূহ খোলা রাখার’ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, প্রচলিত ভ্যাট আইন অনুযায়ী করদাতাদের এপ্রিলের ভ্যাট রিটার্ন দাখিলের শেষ তারিখ ১৫ই মে রাত ১২টা পর্যন্ত। সে লক্ষ্যে এনবিআর আগামী ১৫ মে শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন বিধায় ভ্যাট রির্টান দাখিলের সুবিধার্থে ভ্যাট সার্কেলসমূহ জুমার নামাজের বিরতি রেখে বিকাল ৪টা (প্রয়োজনে বেশি সময়ও খোলা রাখা যাবে) পর্যন্ত খোলা রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

সে অনুযায়ী সার্কেল অফিসসমূহ খোলা রাখার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হলো। অফিস খোলা রাখার সময়ে করদাতাদের করোনা সংক্রান্ত সতর্কতা ও নিরাপত্তামূলক সার্বিক ব্যবস্থা গ্রহণ করে কর্মকর্তাদের দায়িত্ব পালন করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কমিশনারদের এ বিষয়টি মনিটরিং করারও নির্দেশ দেওয়া হয়।

নতুন মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন অনুযায়ী, প্রতিমাসের ১৫ তারিখের মধ্যে রিটার্ন জমা না দিলে ১০ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে। করদাতাদের জরিমানা এড়াতে ও আইনি বাধ্যবাধকতা থাকায় শুক্রবার ছুটির দিনেও ভ্যাট অফিস খোলা রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে এনবিআরের একজন কর্মকর্তা শেয়ার বিজকে বলেন, আইনি বাধ্যবাধকতা ও জরিমানা এড়াতে ছুটির দিনেও অফিস খোলা রাখা হচ্ছে। তবে স্বাস্থ্য বিধি মেনে সর্তকর্তার সাথে দায়িত্ব পালন করতে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিকেল ৪টা পর্যন্ত খোলা রাখার নির্দেশনা দেওয়া হলেও যতক্ষণ করদাতা রিটার্ন দাখিল করবেন ততক্ষণ অফিস খোলা থাকবে।

এর আগে মার্চ মাসের ভ্যাট রিটার্ন দাখিলের সুবিধার্থে ১২-১৫ এপ্রিল চারদিন ভ্যাট অফিস খোলা রাখা হয়। করোনা মহামারির মধ্যেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ভ্যাট কর্মকর্তারা চারদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত খোলা রেখে রিটার্ন গ্রহণ ও রাজস্ব আহরণ করেন।

চারদিনে মোট ৩০ হাজার ৭৮১টি রিটার্ন জমা পড়েছে। এর মধ্যে ম্যানুয়াল দাখিলপত্র ১০ হাজার ৯৯৫টি আর অনলাইনে দাখিলপত্র ১৯ হাজার ৭৮৬টি। চারদিনে মোট আহরিত রাজস্ব ছয় হাজার ২৮৩ কোটি ৩৭ লাখ টাকা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..