দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

রিটার্ন দাখিল চার লাখ ছাড়াল

আয়কর মেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: আয়কর মেলা প্রায় শেষের পথে। আর মাত্র দু’দিন পরই শেষ হবে এবারের মেলা। তবে দিন যত যাচ্ছে করদাতা ও সেবাগ্রহীতাদের ভিড় বাড়ছে। মেলায় এক ছাদের নিচে আয়করের সব সেবা নিতে মেলায় আসছেন করদাতারা। পঞ্চম দিন শেষে রিটার্ন দাখিল চার লাখ এবং আয়কর আদায় এক হাজার ৬৫৮ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে।

অপরদিকে মেলায় ই-পেমেন্ট ব্যবহার করে কর প্রদানকারী করদাতার সংখ্যা বাড়ছে। এবার ঢাকাসহ দেশের আটটি বিভাগ, ৫৬টি জেলা, ৫৬টি উপজেলাসহ মোট ১২০টি স্পটে আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

আয়কর মেলা সচিবালয় সূত্র জানায়, আয়কর মেলার পঞ্চম দিনে সারা দেশে ৩১১ কোটি ৮৫ লাখ ৩৯ হাজার ৮৭৪ টাকার আয়কর আদায় হয়েছে। এই দিন সেবা গ্রহণ করেন দুই লাখ ৯০ হাজার ৮৩৪ জন, রিটার্ন দাখিল হয়েছে এক লাখ ছয় হাজার ২০০টি এবং নতুন ই-টিআইন নিবন্ধন নিয়েছেন চার হাজার ৯৬৫ করদাতা। এছাড়া পাঁচ দিনে আয়কর আদায় হয়েছে এক হাজার ৬৫৮ কোটি ৬৫ লাখ ৬৫ হাজার ৩৮৬ টাকা। এ পর্যন্ত সেবা গ্রহণ করেছেন ১২ লাখ ৫৯ হাজার ৭৪১ জন, রিটার্ন দাখিল হয়েছে চার লাখ ২০ হাজার ৭৬৫টি এবং নতুন ই-টিআইএন নিবন্ধন নিয়েছেন ২১ হাজার ৫০৬ করদাতা।

এর আগে মেলার চতুর্থ দিনে ২৮২ কোটি ৫৭ লাখ ১০ হাজার ৫৭৯ টাকা আয়কর আদায় হয়। এদিন সেবা গ্রহণ করেন দুই লাখ ৯২ হাজার ৫২৫ জন, রিটার্ন দাখিল হয় ৯২ হাজার ৯১৬টি এবং নতুন ই-টিআইএন নিবন্ধন নেন চার হাজার ৫৬২ করদাতা। তৃতীয় দিনে ২৬২ কোটি দুই লাখ ৯২ হাজার ২৫১ টাকা আয়কর আদায় হয়। দ্বিতীয় দিনে ৪৭৯ কোটি এক লাখ ২৮ হাজার ৭৯৭ টাকা রাজস্ব আদায় হয়। মেলার প্রথম দিনে ৩২৩ কোটি ১৮ লাখ ৯৩ হাজার ৮৮৫ টাকা আয়কর সংগ্রহ করে এনবিআর।

সূত্র আরও জানায়, মেলায় আয়কর রিটার্ন দাখিল, ই-টিআইএন গ্রহণ, ই-পেমেন্ট, ই-ফাইলিং ও ই-পেমেন্টের ব্যবস্থা রয়েছে। মেলার বিশেষ আকর্ষণ মোবাইল ব্যাংকিং সুবিধা গ্রহণ করে করদাতারা রকেট, নগদ, বিকাশ, ইউপে ও শিওর ক্যাশের মাধ্যমে আয়কর জমা দিতে পারছেন। এক্ষেত্রে লক্ষণীয় সাড়া দেখা যায়। গত পাঁচ দিনে ই-পেমেন্টে তিন হাজার ২৩১ সেবাগ্রহণকারী দুই কোটি ৩৬ লাখ টাকা কর প্রদান করেন। প্রতিদিন মেলা সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত চলবে।

গতকাল এনবিআরের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল মুয়ীদ চৌধুরী, ড. জাকির আহমেদ খান, ড. আবদুল মজিদ, ড. নাসির উদ্দিন ও মো. গোলাম হোসেন আজকের আয়কর মেলা পরিদর্শন করেন। তারা আয়কর মেলার বিভিন্ন স্টল ও বুথ ঘুরে দেখেন এবং করদাতাদের সঙ্গে কুশলাদি বিনিময় করেন। মেলায় করদাতাদের উপস্থিতি ও মিলনমেলা দেখে তারা সন্তোষ প্রকাশ করেন। দেশের জন্য নিবেদিত হয়ে পেশাদারিত্বের সঙ্গে কাজ করার জন্য কর বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও উৎসাহ প্রদান করেন।

এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, আয়কর মেলায় করদাতাদের উপস্থিতি প্রতিদিনই বৃদ্ধি পাচ্ছে। কর প্রদানে মানুষের আগ্রহের পরিমাণও ক্রমাগতভাবে বাড়ছে। উৎসবের আমেজে মানুষ দলে দলে আয়কর মেলায় রিটার্ন জমা দিচ্ছেন।

তিনি বলেন, কর দেওয়া এখন আনন্দের বিষয়, গর্বের বিষয়। মানুষ এখন কোনো রকম হয়রানি ছাড়াই স্বচ্ছন্দে আয়কর রিটার্ন জমা দিচ্ছেন। বিশেষ করে আমরা দেখছি মেলাতে নারী করদাতাদের লক্ষণীয় উপস্থিতি, যা আমাদের অনুপ্রাণিত করছে, উৎসাহিত করছে, আশাবাদী করছে। সরকারের রাজস্বভাণ্ডারকে সমৃদ্ধ করতে তাদের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..