রিয়াদে বৈশ্বিক ৪৪ কোম্পানির দপ্তর খোলার অনুমতি

শেয়ার বিজ ডেস্ক: আন্তর্জাতিক ৪৪টি কোম্পানিকে রাজধানী রিয়াদে শাখা অফিস খোলার অনুমতি দিয়েছে সৌদি আরব সরকার। রিয়াদকে মধ্যপ্রাচ্যের বাণিজ্যের কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার অংশ হিসেবে এ পদক্ষেপ নিয়েছে দেশটির সরকার। খবর: রয়টার্স।   

গতকাল এক বিবৃতিতে সৌদি সরকার জানিয়েছে, অনুমোদন পাওয়া এসব কোম্পানির মধ্যে রয়েছে ডেলোয়েট, ইউনিলিভার, বেকার হিউজ ও সিমেন্সের মতো বহুজাতিক কোম্পানিসহ প্রযুক্তি, খাদ্য ও পানীয় এবং ভবন নির্মাণ-বিষয়ক বিভিন্ন আন্তর্জাতিক কোম্পানি।

রিয়াদের কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠান দ্য রয়েল কমিশন ফর রিয়াদ সিটির প্রেসিডেন্ট ফাহাদ আল রাশিদ সৌদি রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা এসপিএকে বলেন, এ পদক্ষেপ নেওয়ায় ২০৩০ সালের মধ্যে অন্তত ছয় হাজার ৭০০ কোটি রিয়াল (এক হাজার ৮০০ কোটি ডলার) সৌদি আরবের অর্থনীতিতে যুক্ত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এছাড়া অনুমোদনপ্রাপ্ত কোম্পানিগুলো রিয়াদে তাদের আঞ্চলিক কার্যালয় খুললে রাজধানীতে কমপক্ষে ৩০ হাজার নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বলেও জানিয়েছেন ফাহাদ আল রশিদ।

বিশ্বের শীর্ষ জ্বালানি তেল রপ্তানিকারী দেশ সৌদি আরব মধ্যপ্রাচ্যের আরব অঞ্চলের বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ হিসেবে স্বীকৃত। চলতি বছর সৌদি সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, বিভিন্ন উৎপাদনশীল খাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে বিদেশি মূলধন ও মেধার প্রয়োজন বোধ করেছে দেশটি।

‘তবে সৌদি আরব কখনও চায় না যে, কোনো কোম্পানি অন্য দেশে তাদের বাণিজ্যিক কার্যক্রম বন্ধ করে এখানে শাখা কার্যালয় খুলবে। অর্থাৎ আমরা বলতে চাই, রিয়াদকে আমরা একটি বাণিজ্যিক কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে চাই এবং অবশ্যই তা কারও ক্ষতি না করে,’ এসপিএকে একথা বলেছেন ফাহাদ আল রশিদ।

প্রায় দু’দশক ধরে মধ্যপ্রাচ্যের উপসাগরীয় অঞ্চলের প্রধান বাণিজ্যিক কেন্দ্র হিসেবে পরিচিতি পেয়ে আসছে দুবাই। বেশিরভাগ বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান মধ্যপ্রাচ্যে তাদের শাখা কার্যালয় খোলার জন্য দুবাইকেই বেছে নেয়।

তবে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান সরকারি ক্ষমতায় আসীন হওয়ার পর থেকে দুবাইয়ের এ একচেটিয়া আধিপত্য খর্ব করতে চাইছেন। এক্ষেত্রে দুবাইকে প্রতিযোগী হিসেবে দেখছেন তিনি। চলতি বছরের শুরুর দিকে পেপসিকো, স্কুল্মবার্গার ও বেশটেল দুবাই থেকে তাদের আঞ্চলিক কার্যালয় সরিয়ে রিয়াদে স্থানান্তর করেছে। সৌদি আরবভিত্তিক যেসব কোম্পানি দুবাইয়ে ব্যবসা করত, তারাও তাদের কার্যালয় রিয়াদে সরিয়ে আনছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন   ❑ পড়েছেন  ৯০  জন  

সর্বশেষ..