স্পোর্টস

রিয়াদের দাবি সাকিবের সঙ্গে দ্বন্দ্ব হয়নি

ক্রীড়া প্রতিবেদক: এমনিতেই সময়টা খারাপ যাচ্ছিল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। এর মধ্যেই আবার গেল বিশ্বকাপে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে এ ডানহাতির মনোমালিন্যের খবর বেরিয়েছে গণমাধ্যমে। যে কারণেই হয়তো গণমাধ্যমকেও এড়িয়ে চলছিলেন তিনি। ঘরের মাঠে নতুন সিরিজ শুরুর আগে অবশেষে ব্যাপারটি নিয়ে মুখ খুলেছেন এ অলরাউন্ডার। উড়িয়ে দিয়েছেন নেতিবাচক সব কিছুই। উল্টো দাবি করেছেন, সাকিবের সঙ্গে কিছুই হয়নি তার।
সাকিব-রিয়াদের সম্পর্কের অবনতি নাকি হয়েছিল গেল বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ চলাকালীন সময়ে। সেদিন ৩৮৭ রানের পাহাড়সম টার্গেট তাড়া করতে নেমে দুর্দান্ত ব্যাটিং করে সেঞ্চুরি তুলে নেন সাকিব আল হাসান। সে সময় তার সঙ্গী ছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। সাকিব নাকি রিয়াদকে বলেছিলেন, পাওয়ার হিটিং ব্যাটিং করতে। কিন্তু রিয়াদ টেস্টের মেজাজে স্লো মোশনে ব্যাটিং করেন। যে কারণে বিরক্ত হয়ে ড্রেসিংরুমে ফিরে সাকিব অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে বলেছিলেন, আগামী ম্যাচ থেকে যেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে বসিয়ে রাখা হয়। মিডিয়ায় এমন সংবাদ প্রকাশের পর এ ব্যাপারে এতদিন সাকিব এবং মাহমুদউল্লাহ কেউই মুখ খুলেননি। গতকাল আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ও ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরু করেছেন ৩৫ জনের স্কোয়াড। মাহমুদউল্লাহ অবশ্য নিজ তাগিদে আগেই শুরু করেছিলেন নিজের অনুশীলন। তারই ফাঁকে সাকিবের সঙ্গে তার ব্যাপারটি নিয়ে বলেন, ‘কিছু কিছু জিনিস যেভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে ওভাবে সম্ভবত জিনিসটা হয়নি বা উপস্থাপনটা ভিন্নভাবে হতে পারত। আমি শুধু এতটুকুই বলতে চাই, আমার মনে হয় না সঙ্গে কোনো টিমমেটের সঙ্গে গণ্ডগোল বা কোনো কিছু আছে। আমরা খুব ভালো বন্ধু।’
বাংলাদেশ দলের সবাই সবার সঙ্গে কতটা ঘনিষ্ঠ তা বারবার বোঝাতে চেয়েছেন রিয়াদ। শুধু তাই নয় এটা দেখতে ড্রেসিংরুমে চাইলে আসার কথাও বলেন তিনি, ‘ড্রেসিংরুমে চাইলে আপনারা আসতে পারেন আমরা কীভাবে একজন আরেকজনের সঙ্গে কথা বলি। একজন আরেকজনের সঙ্গে কতটুক মজা করি, কত ভালোভাবে সময় কাটাই। আপনাদের স্বাগত জানাই চাইলে এসে দেখতে পারেন। আমি শতভাগ চেষ্টা করে যাচ্ছি আমি যেন সবার সঙ্গে ভালোভাবে থাকতে পারি এবং দলের জন্য ভালো খেলতে পারি। সবসময় এ কথাটা বলি এবং আজও এটি বললাম, ভবিষ্যতেও বলব যদি সবকিছু ঠিক থাকে।’
গেল বিশ্বকাপে কেন গণমাধ্যম এড়িয়ে ছিলেন। গতকাল এ প্রশ্নেরও উত্তর দিয়েছেন রিয়াদ, ‘না না। আমি মিডিয়ার বাইরে ছিলাম না। সঠিক সময়ের জন্য অপেক্ষা করছিলাম। যেন আমি ভালো কিছু করে আপনাদের সামনে আসতে পারি এটার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। এর মধ্যে গত সিরিজটা আমার ভালো হয়নি। আমার মনে হয় বিশ্বকাপটা মোটামুটি ভালোই খেলেছি। শেষ সিরিজটা খারাপ গিয়েছে।’
জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট, ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি মিলে ৩০৬ ম্যাচ খেলে ৭টি সেঞ্চুরিতে ৭ হাজার ৯০০ রান করেছেন রিয়াদ। পাশাপাশি বল হাতে ১৫২ উইকেট নিয়েছেন তিনি। সামনে যতদিন খেলবেন ততদিন এ ধারা ধরে রাখতে চান এ তারকা, ‘আমি আমার শতভাগ দেওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি যাতে সবার সঙ্গে ভালোভাবে থাকতে পারি। টিমের জন্য ভালো থাকতে পারি। আগেও এই কথা বলেছি, ভবিষ্যতে এটা করতে চাই।’
চোটের কারণে কয়েক মাস ধরে ঠিকমতো বল হাতে নিতে পারছেন না মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তবে আগামী মাসে আফগানিস্তান ও জিম্বাবুয়ে সিরিজে আগের মতোই হাত ঘোরাতে তৈরি তিনি, ‘প্রায় ৭ মাস পর বোলিং করতে পারছি। ভালো লাগছে। বোলিং আমার খেলার একটা অংশ। এতদিন ওটা মিস করছিলাম। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী সিরিজেই ফের বোলিং করব।’

 

 

 

সর্বশেষ..