প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

রেকর্ড বৃষ্টিপাতে বিপর্যস্ত চীন

শেয়ার বিজ ডেস্ক: রেকর্ড বৃষ্টিপাতের কারণে ভয়াবহ বন্যায় বিপর্যস্ত চীন। গত সোমবার প্রায় দুই লাখ মানুষকে উদ্ধার করে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। খবর: সিজিটিএন।

বন্যায় দুই হাজার কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানায় দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম। তবে এখনও প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়নি। দেশটির পার্ল নদীসংলগ্ন অঞ্চলে বন্যা হয়েছে বলে জানা গেছে। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দক্ষিণাঞ্চলের গুয়াংদং ও গুয়াংক্সি এলাকা দুইটি।

১৯৬১ সালের পর এই প্রথম এত বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে চীনে। সে দেশের জাতীয় আবহাওয়া দপ্তরের তরফে পাওয়া খবর অনুযায়ী, মে ও জুনে প্রায় ৬২১ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টিপাতের কারণে অচল হয়ে পড়েছে দেশের যোগাযোগব্যবস্থা। এর আগে কভিড-১৯ সংক্রমণে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় কড়া লকডাউন ঘোষণা করে সরকার। এ কারণে যোগাযোগ ব্যবস্থা এমনিতেই বেহাল হয়েছিল। তার ওপর শুরু হলো বন্যা। ফলে সমস্যা আরও বেড়ে গিয়েছে।

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে বন্যার কিছু ছবি প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে দেখা গিয়েছে, বিদ্যালয়গুলোকে রাতারাতি ত্রাণ শিবিরে পরিণত করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত গুয়াংদংয়ের একটি ছবিতে দেখা যায়, খেলার মাঠে তাবু খাটিয়ে থাকার ব্যবস্থা করছেন সাধারণ মানুষ। রাবারের ডিঙিতে চড়ে মানুষকে উদ্ধার করছেন উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা। শহরের রাস্তায় মাটি মেশানো পানি জমে রয়েছে।

আবহাওয়া দপ্তর থেকে সতর্কতা জারি করে বলা হয়েছে, ফের ভারী বৃষ্টির শঙ্কা রয়েছে। এ কারণে স্থানীয় বাসিন্দাদের জন্য নির্দেশিকা জারি করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। নিচু জমিতে যাদের বাড়ি, অবিলম্বে নিরাপদ জায়গায় সরে যেতে বলা হয়েছে। কর্মক্ষেত্রে উপস্থিতি শিথিল করা হয়েছে।

দ্য স্টেট ফ্লাড কন্ট্রোল অ্যান্ড ড্রট রিলিফ হেডকোয়ার্টারস জানায়, পার্ল নদীর অববাহিকায় আরও বন্যার শঙ্কা রয়েছে। ইয়াংজি নদীর আশপাশে বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও ত্রাণ কার্যক্রম আরও বাড়ানোর ঘোষণা দেয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, গত মে মাসে হুয়ান প্রদেশে অতিবৃষ্টির কারণে মৃত্যু হয়েছিল ২১ জনের।