প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

রেল লাইনের উপর থেকে মাথা ও দেহ বিছিন্ন লাশ উদ্ধার

প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে রেললাইনে উপর থেকে মাথা ও দেহ বিছিন্ন এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে জিআরপি পুলিশ। বুধবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে কোটচাঁদপুর সরকারি কেএমএইচ কলেজের পিছনের রেললাইনের উপর থেকে তার লাশটি উদ্ধার করা হয়। রেললাইনের উপর রশি দিয়ে তাকে বেঁধে রাখা হয়েছিল।

স্থানীয়রা সকালে লাশটি পড়ে থাকতে দেখে পুলিশ ও স্টেশন মাস্টারকে জানায়। পরে যশোর থেকে জিআরপি পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। মৃত ব্যক্তির পকেট থেকে একটি জাতীয় পরিচয় পত্র ও একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। পরিচয় পত্রে ওই ব্যক্তির নাম মনির হোসেন, পিতা মৃত মফিজ উদ্দীন, গ্রাম পাথরা, ঢাকাপাড়া, মহেশপুর ঝিনাইদহ লেখা আছে।

কোটচাঁদপুর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মইনুল হোসেন মইন জানান, সকালে এলাকাবাসী তাকে খবর দেন রেল লাইনের উপর দেহ ও মাথা বিছিন্ন এক ব্যক্তির লাশ পড়ে রয়েছে। রাতের কখন, কোন ট্রেনে, কাটা পড়ে মারা গেছে তা তিনি বলতে পারেননি।

তিনি আরো জানান, রশি দিয়ে রেল লাইনের উপর তাকে বেঁধে রাখা হয়েছিল। ধারনা করা হচ্ছে তাকে হত্যা করা হয়েছে। তিনি বিষয়টি যশোর জিআরপি পুলিশকে জানিয়েছেন।

মহেশপুর যাবদপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বর আরিফুল ইসলাম জানান, নিহত ব্যক্তি ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার যাবদপুর ইউনিয়নের পাথরা, ঢাকাপাড়া গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দীনের ছেলে মনির হোসেন বলে সনাক্ত করেন। কিন্তু তারা মহেশপুরের স্থানীয় বাসিন্দা নন। সপ্তাহ খানেক আগে মনির গ্রামে এসে আবার চলে গেছে।

যশোর জিআরপি পুলিশের আইসি রবিউল ইসলাম জানান, নিহত ব্যক্তির কাছ থেকে একটি মোবাইল ফোন ও একটি জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে। সেখান তার নাম লেখা আছে মনির হোসেন। তবে কেউ এখনো লাশ সনাক্ত করতে আসেনি। ঘটনাস্থল থেকে রশি পাওয়ার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, তাকে হত্যা করা হয়েছে নাকি অন্য কোন ঘটনা আছে সেটা লাশের ময়না তদন্তের পর জানা যাবে। এখনই কোন কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না বলে তিনি জানান।