প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

 ‘রেল সেবা’ অ্যাপে মিলবে ট্রেনের টিকিট

নিজস্ব প্রতিবেদক: এখন থেকে রেলের টিকিট কাটা যাবে অ্যাপের মাধ্যমে। রেল সেবা নামে নতুন অ্যাপটি দিয়ে যেকোনো জায়গা থেকে নিমিষেই কাটা যাবে নির্দিষ্ট গন্তব্যের ট্রেনের টিকিট। এছাড়া রেলযাত্রীরা বাংলাদেশ রেলওয়ের ই-টিকিট ওয়েবসাইট ‘ইটিকেট.রেলওয়ে.জিওভি.বিডি’-এর মাধ্যমেও টিকিট কাটতে পারবেন। গতকাল রাজধানীর রেল ভবনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে রেল সেবা নামের নতুন অ্যাপটির উদ্বোধন করেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. হুমায়ুন কবির এবং বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্র নাথ মজুমদার।

অ্যাপটি তৈরি ও ব্যবস্থাপনার কাজ করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে টিকেটিং পার্টনার সহজ সিনেসিস ভিনসেন জেভি। নতুন রেল সেবা অ্যাপটি বর্তমানে গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে। টিকিট কাটার জন্য যাত্রীদের অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিজের নাম, মোবাইল নম্বর, ইমেইল অ্যাড্রেস, জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জš§নিবন্ধন নম্বর দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। তবে কোনো যাত্রী যদি এরই মধ্যে বাংলাদেশ রেলওয়ের ই-টিকিট ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করে থাকেন, তাহলে তাকে আর দ্বিতীয়বার রেজিস্ট্রেশন করতে হবে না। শুধু মোবাইল নম্বর ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করলেই হবে।

অ্যাপ ব্যবহার করে টিকিট কাটার জন্য যাত্রীকে যাত্রা শুরুর তারিখ, গন্তব্যস্থান ও পছন্দের ক্লাস সিলেক্ট করতে হবে। একই সঙ্গে ট্রেন ডিটেলস থেকে সহজেই ট্রেনের বিস্তারিত তথ্য দেখতে পারবেন। তারপর অ্যাভেইলেবল ট্রেন থেকে পছন্দমতো বগি ও সিট সিলেক্ট করে অনলাইনে পেমেন্টের ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে টিকিট কেটে ফেলতে পারবেন। যাত্রীর ইমেইলে টিকিট পাঠিয়ে দেয়া হবে। একই সঙ্গে যাত্রী ই-টিকিট অ্যাপ থেকে নিজের সুবিধামতো ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

যাত্রীদের সুবিধার কথা চিন্তা করে রেল সেবা অ্যাপের নেভিগেশন বারে সংযুক্ত করা হয়েছে নানা ফিচার। ভেরিফাই টিকিট অ্যাপ থেকে সহজেই টিকিট ভেরিফাই করার সুবিধা রয়েছে। এছাড়া মাইটি কেটস-এর মাধ্যমে সাত দিন পর্যন্ত পুরোনো ও আসন্ন ট্রিপ ডিটেলস দেখা যাবে। যাত্রীরা প্রয়োজনে মাই অ্যাকাউন্টস ট্যাবের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশনের সময় নিজের দেয়া তথ্য পাসওয়ার্ড আপডেট করে নিতে পারবেন।

প্রসঙ্গত, পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে আগামী ১ জুলাই থেকে যাত্রীদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু করবে বাংলাদেশ রেলওয়ে। গতকাল রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন রেল ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানিয়েছেন।

মন্ত্রী জানান, আগামী ১, ২, ৩, ৪ ও ৫ জুলাই বিক্রি হবে যথাক্রমে ৫, ৬, ৭, ৮ ও ৯ জুলাইয়ের টিকিট। ফিরতি টিকিট বিক্রি শুরু হবে ৭ জুলাই। ৭, ৮, ৯ ও ১১ জুলাই বিক্রি হবে যথাক্রমে ১১, ১২,  ১৩,  ১৪ ও ১৫  জুলাইয়ের ফিরতি ট্রেনের টিকিট।