প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

রোগীর স্বজনদের মারধরের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

শেয়ার বিজ প্রতিনিধি, বগুড়া: বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে রোগীর স্বজনদের মারধরের ঘটনায় তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার হাসপাতালের সহকারী পরিচালক কামরুল আহসানকে প্রধান করে এ কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার রাতে হাসপাতালে জয়পুরহাট থেকে আসা রাহেলা বেওয়ার (৭৫) চিকিৎসাকে কেন্দ্র করে মারধরের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনার পরদিন শুক্রবার রাহেলা বেওয়াকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়ার পর বাড়িতে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

রাহেলা বেওয়ার ছেলে গাজীউর রহমান ও নাতি রুম্মান হোসেন শান্ত তাদের ওপর হামলা ও মারপিটের অভিযোগ করেন শিক্ষানবিস চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে। অন্যদিকে শজিমেক হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদ সভাপতি আসিফ জানান, রোগীর স্বজনরা মহিলা ইন্টার্ন চিকিৎসককে অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করেন। অন্য চিকিৎসকদের একটি রুমে আটকে রেখে হামলা করা হলে হাসপাতালে অবস্থানরত অন্য রোগীর স্বজনরা তাদের মারধর করেন।

শজিমেক হাসপাতালের উপপরিচালক নির্মলেন্দু চৌধুরী জানান, ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল শনিবার তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির প্রধান হলেন হাসপাতালের সহকারী পরিচালক কামরুল আহসান। এ ছাড়াও মেডিসিন বিভাগের রেজিস্ট্রার মমতাজুল ইসলাম ও ওয়ার্ড মাস্টার (ইনচার্য) তবিবুর রহমানকে সদস্য করা হয়েছে। আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।