রোহিঙ্গারা বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

শেয়ার বিজ ডেস্ক: জাতিগত নিপীড়নের শিকার হয়ে মিয়ানমার থেকে শরণার্থী হয়ে আশ্রয় নেয়া লাখো রোহিঙ্গা বাংলাদেশের জন্য ‘বোঝা’ হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত দেখা করতে গেলে তার সঙ্গে আলোচনায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোই যে এ সংকটের সমাধান, তা ডাচ রাষ্ট্রদূত স্বীকার করেন বলে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানিয়েছেন।

ঢাকায় নেদারল্যান্ডসের নতুন রাষ্ট্রদূত অ্যান জেরার্ড ফন ল্যুভেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের জন্য গণভবনে গিয়েছিলেন। বৈঠকে তাদের আলোচনার বিষয়বস্তু সাংবাদিকদের জানান ইহসানুল করিম। সূত্র: বিডিনিউজ

প্রেস সচিব বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তিন বছর হয়ে গেছে। এরা (রোহিঙ্গা) আমাদের জন্য বোঝা। তাদের জন্য আমাদের কক্সবাজারের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। আমাদের কিছু বনজ সম্পদও নষ্ট হয়েছে।’

প্রসঙ্গক্রমে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে আটকে পড়া পাকিস্তানি নাগরিকদের বিষয়েও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘এগুলো আমাদের ওপর অনেক অর্থনৈতিক চাপ সৃষ্টি করে।’

ডাচ রাষ্ট্রদূতকে উদ্ধৃত করে প্রেস সচিব বলেন, ‘বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা, এনজিও কর্মকর্তা ও আঞ্চলিক নেতাদের সঙ্গে তার আলাপ হয়েছে এবং রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে প্রত্যাবাসনই এ সংকটের একমাত্র সমাধান বলে সবাই মনে করেন।’

কয়েক দশক ধরে বিভিন্ন সময় মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা চার লাখের মতো রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে সেনা অভিযান শুরুর পর প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশ সীমান্তে নামে রোহিঙ্গাদের ঢল। মানবিক দিক বিবেচনায় বাংলাদেশ সীমান্ত খুলে দিলে কয়েক মাসের মধ্যে সাত লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। সব মিলিয়ে ১১ লাখের মতো রোহিঙ্গা মিয়ানমার সীমান্তের জেলা কক্সবাজারের টেকনাফ ও উখিয়ায় বিশ্বের সর্ববৃহৎ শরণার্থী শিবিরে রয়েছে। কয়েক হাজার রোহিঙ্গাকে সম্প্রতি ভাসানচরে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

নিপীড়িত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বিশ্বে প্রশংসিত হলেও বিশাল শরণার্থীদের ভারবহন ও আর্থসামাজিক নানা সমস্যার কথাও বলে আসছে বাংলাদেশ।

মিয়ানমার তার দেশের নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের সঙ্গে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হলেও চার বছরেও সেই প্রত্যাবাসন শুরু হয়নি। প্রত্যাবাসন শুরু করার জন্য মিয়ানমারকে চাপ দিতে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আসছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন   ❑ পড়েছেন  ৯১  জন  

সর্বশেষ..