কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

লভ্যাংশ পাঠিয়েছে আট কোম্পানি

নিজস্ব প্রতিবেদক: গত ৩০ জুন ২০১৯ সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য ঘোষিত লভ্যাংশ পাঠিয়েছে আট কোম্পানি। ঘোষিত বোনাস লভ্যাংশ বেনিফিশিয়ারি ওনারস (বিও) হিসাবে আর ক্যাশ ডিভিডেন্ড বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিইএফটিএন) মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের নিজ নিজ ব্যাংক হিসাবে পাঠিয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ফারইস্ট নিটিং অ্যান্ড ডায়িং ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড: ঘোষিত নগদ লভাংশ বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিইএফটিএন) মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের নিজ নিজ ব্যাংক হিসেবে পাঠিয়েছে। ৩০ জুন ২০১৯ সালের সমাপ্ত হিসাববছরে কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের জন্য পাঁচ শতাংশ নগদ ও পাঁচ শতাংশ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। এ সময় কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৯৭ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২০ টাকা ৪৮ পয়সা।

ড্যাফোডিল কম্পিউটারস লিমিটেড: আগামী ২০ ও ২১ জানুয়ারি সকাল ১০টা থেকে বেলা ৩টার মধ্যে কোম্পানি কার্যালয় থেকে বিনিয়োগকারীদের ডিভিডেন্ড ওয়ারেন্ট সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে। আর যারা এই সময়ের মধ্যে সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হবে তাদের ঠিকানায় কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠানো হবে। ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটি ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেওয়ার ঘোষণা করেছে।

আলিফ ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি লিমিটেড: ঘোষিত বোনাস লভাংশ বিনিয়োগকারীদের বিও অ্যাকাউন্টসে গতকাল ১৬ জানুয়ারি পাঠিয়েছে। কোম্পানিটি ৩০ জুন ২০১৯ সমাপ্ত  হিসাববছরের জন্য দুই শতাংশ নগদ ও আট শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ৩০ জুন ২০১৯ সমাপ্ত হিসাববছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৭৪ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৪ টাকা ৫০ পয়সা।

আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড: ঘোষিত বোনাস লভ্যাংশ গতকাল ১৬ জানুয়ারি বিনিয়োগকারীদের বিও অ্যাকাউন্টসে পাঠিয়েছে। ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটি তিন শতাংশ নগদ ও সাত শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে দুই টাকা ৭৪ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২০ টাকা ৮৩ পয়সা। আর ওই সময় মোট মুনাফা করেছে ১১ কোটি ৩৩ লাখ ২০ হাজার টাকা।

রহিম টেক্সটাইল মিলস লিমিটেড: ঘোষিত বোনাস লভ্যাংশ গতকাল ১৬ জানুয়ারি বিনিয়োগকারীদের বিও অ্যাকাউন্টসে পাঠিয়েছে। ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পানিটি পাঁচ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৫ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১২ টাকা ৩২ পয়সা।

অ্যাডভেন্ট ফার্মা লিমিটেড: ঘোষিত বোনাস লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের বিও অ্যাকাউন্টসে পাঠিয়েছে। ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটি দুই শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে দুই টাকা ১০ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ১৩ টাকা ৫০ পয়সা। আর ওই সময় মোট মুনাফা করেছে ১৫ কোটি ৮৪ লাখ টাকা।

বেঙ্গল উইন্ডসর থার্মোপ্লাস্টিক লিমিটেড: ঘোষিত নগদ লভ্যাংশ বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিইএফটিএন) মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের নিজ নিজ ব্যাংক হিসাবে পাঠিয়েছে। ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পানিটি পাঁচ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে এক টাকা ছয় পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ২৪ টাকা ৭৮ পয়সা।

ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন লিমিটেড: ঘোষিত বোনাস লভ্যাংশ গত ১৪ জানুয়ারি বিনিয়োগকারীদের বিও অ্যাকাউন্টসে পাঠিয়েছে। ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পানিটি ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে এক টাকা ১৬ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ১২ টাকা ৯১ পয়সা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..