প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

লভ্যাংশ পাঠিয়েছে বারাকা পাওয়ার

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিনিয়োগকারীদের বেনিফিশিয়ারি ওনার্স (বিও) হিসাবে বোনাস ও ব্যাংক হিসাবে নগদ লভ্যাংশ পাঠিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত  কোম্পানি বারাকা পাওয়ার লিমিটেড। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ৩০ জুন ২০১৬ পর্যন্ত সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য ঘোষিত বোনাস লভ্যাংশ বিও হিসাবে আর নগদ লভ্যাংশ বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ডস ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিইএফটিআই) মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের নিজ নিজ ব্যাংক হিসাবে পাঠিয়েছে কোম্পানিটি। উল্লেখ্য, ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানিটি ২০১১ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। গতকাল কোম্পানির শেয়ারদর আগের কার্যদিবসের চেয়ে তিন দশমিক ২১ শতাংশ বা এক টাকা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ৩২ টাকা ২০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৩২ টাকা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৩১ টাকা ৩০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৩২ টাকা ৪০ পয়সার মধ্যে হাতবদল হয়। ওইদিন ৩০ লাখ ৩৩ হাজার ৯৯৮টি শেয়ার মোট এক হাজার ৩৭৮ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৯ কোটি ৬৬ লাখ ৬৮ হাজার টাকা। গত এক বছরে শেয়ারদর ২৭ টাকা ৫০ পয়সা থেকে ৩৩ টাকা ৬০ পয়সার মধ্যে হাতবদল হয়। কোম্পানির ৩০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১৭৩ কোটি টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৫৮ কোটি ১০ লাখ টাকা।

২০১৬ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত সমাপ্ত হিসাববছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের জন্য ১৫ শতাংশ নগদ ও পাঁচ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল। এ সময় শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) করেছিল দুই টাকা ৬৫ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এুয়নএভি) দাঁড়িয়েছে ১৯ টাকা ৮৬ পয়সা। কর-পরবর্তী মুনাফা করেছিল ৪৩ কোটি ৯০ লাখ ৬০ হাজার টাকা।

২০১৫ সালে আট শতাংশ নগদ ও আট শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল। ওই সময় ইপিএস ছিল দুই টাকা ৭৬ পয়সা এবং এনএভি ছিল ১৯ টাকা ৩৯ পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে এক টাকা ৯০ পয়সা ও ১৯ টাকা ৪৫ পয়সা।