দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

লেনদেনে ওষুধ খাতের প্রাধান্য দর বেড়েছে মিউচুয়াল ফান্ডের

রুবাইয়াত রিক্তা:পুঁজিবাজারে গতকাল সূচক সামান্য ইতিবাচক ছিল। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক মিশ্র প্রবণতায় থাকলেও লেনদেন বেড়েছে ১৫১ কোটি টাকা। গতকাল লেনদেনের প্রথমার্থে শেয়ার কেনার চাপে সূচক ৩৪ পয়েন্ট ইতিবাচক হলেও শেষার্ধে বিক্রির চাপে সূচক মাত্র ৯ পয়েন্ট ইতিবাচক থাকতে বেড়েছে। বৃহৎ খাতগুলোয় শেয়ার কেনা ও বেচার চাপ প্রায় সমান সমান হলেও দর বৃদ্ধিতে একক প্রাধান্য ছিল মিউচুয়াল ফান্ডের। তবে ছোট ও মাঝারি আকারের খাতগুলোর মধ্যে সিমেন্ট, সেবা, আবাসন ও চামড়াশিল্প খাত ভালো অবস্থানে ছিল। বৃহৎ খাতগুলোয় ছিল মুনাফা তোলার প্রবণতা।

১৭ শতাংশ করে লেনদেন হয়ে শীর্ষে অবস্থান করে ওষুধ ও রসায়ন এবং বস্ত্র খাত। ওষুধ ও রসায়ন খাতে ৬২ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। ওরিয়ন ইনফিউশনের সাড়ে ১৮ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ছয় টাকা ২০ পয়সা। কোম্পানিটি দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশের তালিকায় নবম অবস্থানে উঠে আসে।  ইন্দোবাংলা ফার্মার ১৫ কোটি ১৩ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে ১০ পয়সা। ১০ শতাংশ বেড়ে ওরিয়ন ফার্মা দর বৃদ্ধিতে দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে আসে। বস্ত্র খাতে দর বেড়েছে ৪৮ শতাংশ কোম্পানির। ৩০ কোটি ৭৯ লাখ টাকা লেনদেন হয়ে শীর্ষে উঠে আসে শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ। শেয়ারটির দর দুই টাকা ২০ পয়সা বেড়েছে। প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে সায়হাম টেক্সটাইল দর বৃদ্ধিতে তৃতীয় অবস্থানে উঠে আসে। প্রকৌশল খাতে লেনদেন হয় ১৪ শতাংশ। মুনাফা তোলার প্রবণতায় এ খাতে ৫৩ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। এসএস স্টিলের প্রায় ১১ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১০ পয়সা। সিমেন্ট খাত শতভাগ ইতিবাচক ছিল। লাফার্জহোলসিমের ৩০ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ৪০ পয়সা। দুই দিন বাড়লেও গতকাল ব্যাংক খাতের লেনদেন কমেছে। এ খাতে ৪৩ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। ৩০ শতাংশের দর কমেছে। বাকিগুলোর দর অপরিবর্তিত ছিল। রূপালী ব্যাংক দরপতনের শীর্ষ দশের তালিকায় অবস্থান করে। আর্থিক খাতে বিক্রির চাপ বেশি হলেও ৯ দশমিক ৯০ শতাংশ বেড়ে আইসিবি দর বৃদ্ধিতে চতুর্থ অবস্থানে উঠে আসে। জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে ৪২ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। ১৫ কোটি ৬৩ লাখ টাকা লেনদেন হলেও খুলনা পাওয়ারের দর অপরিবর্তিত ছিল। টেলিযোগাযোগ খাতে দুই কোম্পানি দরপতনে ছিল। বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্লসের ১৩ কোটি ৩৯ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দরপতন হয় তিন টাকা ৪০ পয়সা। সেবা ও আবাসন খাত শতভাগ ইতিবাচক ছিল। এ খাতের সাইফ পাওয়ার টেকের সাড়ে ৯ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে দেড় টাকা। মিউচুয়াল ফান্ড খাতে ৭৮ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। ১০ শতাংশ বেড়ে আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ড মিউচুয়াল ফান্ড দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে। আরও চার ফান্ড এ তালিকায় অবস্থান করে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..