দিনের খবর প্রথম পাতা

লেনদেনে তিন খাতের অবদান ৫৪ শতাংশ

মুস্তাফিজুর রহমান নাহিদ: সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার মধ্য দিয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন শেষ হয়েছে। দিন শেষে ১৬ পয়েন্ট বেড়ে সূচকের অবস্থান হয়েছে ছয় হাজার ৬৯ পয়েন্টে। তবে সূচক বাড়লেও কমতে দেখা যায় লেনদেন হওয়া সিংহভাগ কোম্পানির শেয়ারদর। গতকাল লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্য দর বেড়েছে ১৫৬টির, কমেছে ১৭৯টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৮টির শেয়ারদর।

বাজার বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, গতকালের মোট লেনদেনে ৫৪ শতাংশই তিন খাতের। খাত তিনটি হচ্ছে বিমা, প্রকৌশল ও বিবিধ। এর মধ্য সবার শীর্ষে ছিল বিমা খাত। দিন শেষে মোট লেনদেনে এ খাতটির অবদান দেখা যায় ২৭ শতাংশ। এর পরের অবস্থানে ছিল বিবিধ খাত। খাতটি মোট লেনদেনে ১৭ শতাংশের বেশি অবদান রাখতে সক্ষম হয়। এছাড়া লেনদেনে ১০ শতাংশের বেশি একক অবদান রাখে প্রকৌশল খাত।  একইভাবে গতকালের লেনদেনে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত ৯ শতাংশ, ওষুধ ও রসায়ন খাত আট দশমিক ৪৫ শতাংশ ও ব্যাংক খাত মোট লেনদেনে ছয় দশমিক পাঁচ শতাংশ অবদান রাখতে সক্ষম হয়।

এদিকে গতকাল ডিএসইতে লেনদেন আগের দিনের চেয়ে কমে গেছে। দিন শেষে ডিএসইতে মোট এক হাজার ৮৩৪ কোটি টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট কেনাবেচা হয়। এর মধ্য ব্লক মার্কেটের লেনদেন ২৪১ কোটি টাকা। গতকাল এ মার্কেটে মোট ৩৬টি কোম্পানি অংশ নেয়। কোম্পানিগুলোর এক কোটি ৮৮ লাখ ৫৫ হাজার ৮০৬টি শেয়ার ৯৮ বার হাতবদল হতে দেখা যায়।

প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১০৪ কোটি ৬৯ লাখ ৫৭ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬৬ কোটি ৩২ লাখ ৯৯ হাজার টাকা ব্রিটিশ আমেরিকান ট্যোবাকোর। তৃতীয় সর্বোচ্চ ২৩ কোটি ৪২ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে ন্যাশনাল ফিড মিলের।

এছাড়া বেক্সিমকোর এক কোটি ৯৭ লাখ ১০ হাজার টাকা, বেক্সিমকো ফার্মার ১৯ কোটি ৭১ লাখ ১০ হাজার টাকা, ফনিক্স ফাইন্যান্সের দুই কোটি ৭৫ লাখ টাকা, রেনেটার ছয় কোটি এক লাখ ৮১ হাজার টাকা ও এসকে ট্রিমসের ৬০ লাখ ১৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..