দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা

লেনদেনে পাঁচ খাতের অবদান ৭১ শতাংশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে গতকাল ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় শেষ হয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক। পাশাপাশি বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণের কারণে বৃদ্ধি পেয়েছে লেনদেন হওয়া সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারদর।

গতকাল ডিএসইতে মোট ৩৫৫টি প্রতিষ্ঠান ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার এবং ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বাড়তে দেখা যায় ১৯৪টি প্রতিষ্ঠানের। দর কমে ১০৬টির। আর ৫৫টি প্রতিষ্ঠান ফান্ড ইউনিট ও শেয়ারদর অপরিবর্তিত থাকে।

এদিকে গতকালের বাজার বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, এদিন মোট লেনদেনে পাঁচটি খাতের কোম্পানির অবদান ছিল ৭১ শতাংশেঅন্যদিকে গতকালের মোট লেনদেনে বস্ত্র খাতের পরের অবস্থানে ছিল মিউচুয়াল ফান্ড। দিন শেষে মোট লেনদেন ফান্ডগুলোর অবদান ছিল প্রায় ১২ শতাংশ। এছাড়া গতকালের মোট লেনদেনে আর্থিক খাতের ১০ দশমিক ২৫ এবং ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানির অবদান ছিল ১১ দশমিক ৪১। এই পাঁচ খাতের কোম্পানি ও ফান্ডের তুলনায় অন্য খাতগুলো ছিল প্রায় বিবর্ণ।র কিছু বেশি। এই পাঁচটি খাত হচ্ছে বিমা, ওষুধ ও রসায়ন, মিউচুয়াল ফান্ড, আর্থিক এবং বস্ত্র খাত।

খাতগুলোর মধ্যে গতকাল সবচেয়ে বেশি লেনদেন চোখে পড়ে বিমা খাতের কোম্পানির। গতকাল দিন শেষে মোট লেনদেনে এ খাতের অংশগ্রহণ চোখে পড়ে ২৫ দশমিক ৮৮ শতাংশ। পরের অবস্থানে ছিল বস্ত্র খাত। আগের দিনের মতো গতকালও এ খাতের শেয়ারে বেশ আগ্রহ ছিল বিনিয়োগকারীদের। তাদের আগ্রহের কারণে গতকাল মোট লেনদেনে এ খাতের অংশগ্রহণ ছিল ১২ দশমিক ২৩ শতাংশ।

ধরে দিন শেষে লেনদেন আগের দিনের চেয়ে কমে যায়। গতকাল ডিএসইতে মোট ৮৭৩ কোটি টাকার শেয়ার এবং মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট কেনাবেচা হয়। এর মধ্যে ব্লক মার্কেট লেনদেন হয় ৩৫ কোটি টাকার শেয়ার।

এদিকে গতকাল সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার কারণে দিনের একটা সময়ের পর থেকে অনেক বিনিয়োগকারী তাদের বিক্রয় আদেশ তুলে নেন, যার জের

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..