শনাক্ত আবারও হাজার ছাড়াল

কভিডে মৃত্যু ২৫

নিজস্ব প্রতিবেদক: কভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল ২১ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এই সময়ে কভিড শনাক্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে। এর আগে টানা দুদিন শনাক্ত হাজারের নিচে ছিল। গতকাল সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পাঠানো কভিডবিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় কভিড আক্রান্ত হয়েছেন আরও এক হাজার ২১২ জন। এর আগের দিন আক্রান্ত হয়েছিলেন ৯৮০ জন। তারও একদিন আগে ২৫ সেপ্টেম্বর আক্রান্ত হয়েছিলেন ৮১৮ জন।

শনাক্ত এবং মৃত্যু বাড়লেও গত ২৪ ঘণ্টায় কমেছে শনাক্তের হার। গত ২৪ ঘণ্টায় রোগী শনাক্তের হার চার দশমিক ৩৬ শতাংশ; যা গতকাল  ছিল চার দশমিক ৪১ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ২৫ জনকে নিয়ে দেশে সরকারি হিসাবে কভিড আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেলেন ২৭ হাজার ৪৩৯ জন। শনাক্ত হওয়া এক হাজার ২১২ জনকে নিয়ে মোট শনাক্ত হলেন ১৫ লাখ ৫২ হাজার ৫৬৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় কভিড থেকে সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ২০২ জন। আর দেশে এখন পর্যন্ত কভিড থেকে সুস্থ হলেন ১৫ লাখ ১২ হাজার ৬৮১ জন। একই সময়ে কভিড পরীক্ষার জন্য ২৮ হাজার ৪৮৫টি নমুনা সংগ্রহ ও ২৭ হাজার ৭৮৭টি পরীক্ষা করা হয়েছে।

দেশে এখন পর্যন্ত ৯৬ লাখ ৪৬ হাজার ৯৩৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৭১ লাখ ১১ হাজার ৮৮২টি এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২৫ লাখ ৩৫ হাজার ৫৫টি। দেশে এখন পর্যন্ত রোগী শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৯ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৪৩ শতাংশ এবং মৃত্যুহার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ২৫ জনের মধ্যে পুরুষ ১৩ জন আর নারী ১২ জন। দেশে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট পুরুষ মারা গেলেন ১৭ হাজার ৬১৮ জন এবং নারী ৯ হাজার ৮২১ জন। মারা যাওয়াদের বয়স বিবেচনায় ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে রয়েছেন চারজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে চারজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন এবং ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানাচ্ছে, মারা যাওয়া ২৫ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের আছেন ৯ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের আট জন, খুলনা ও সিলেট বিভাগের তিনজন করে এবং রংপুর বিভাগের দুজন। ২৫ জনের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ২০ জন এবং বেসরকারি হাসপাতালে পাঁচজন।

বিষয় ➧

সর্বশেষ..