সুস্বাস্থ্য

শরীরকে ঠাণ্ডা রাখে সবজিগুলো…

অন্য সময়ের তুলনায় গ্রীষ্মকালীন তাপে শরীর ঘামে একটু বেশিই। এ সময় শরীর থেকে প্রচুর পরিমাণে পানি বের হয়ে যায়। এমন গরমে শরীর ঠাণ্ডা রাখতে ও প্রয়োজনীয় পানীয়র অভাব মেটায় কিছু সবজি। গ্রীষ্মকালে এসব সবজি হাতের নাগালেই পাওয়া যায়। দেখে নিতে পারেন এর কয়েকটি:

লাউ

গ্রীষ্মকালীন সবজি লাউ। এতে পটাসিয়াম, সোডিয়াম ও ভিটামিন ‘সি’ বিদ্যমান। এছাড়া এতে ৯০ ভাগ পানি রয়েছে। এজন্য লাউ খেলে শীতল হয় দেহ। ঘামের কারণে পানির যে ঘাটতি হয়, তা পূরণেও সহায়তা করে লাউ

শসা

শসাও গ্রীষ্মকালীন সবজি। এর ৯৬ শতাংশই পানি। তাই এ গরমে শসা শরীর হাইড্রেটেড রাখবে। সবজিটি আঁশসমৃদ্ধ, ক্যালরি কম। তাই হালকা নাস্তায় শসা খেতে পারেন অথবা সালাদ বানিয়েও খেতে পারেন

সবুজ শাক

সব ধরনের সবুজ শাক আঁশ ও ভিটামিনে ভরপুর, যা হজমে সহায়ক। গ্রীষ্মের তাপ মোকাবিলায় সাহায্য করে সবুজ শাক

ঝিঙ্গে

ঝিঙ্গে শুধু সুস্বাদুই নয়, অনেক পুষ্টিকরও। বিশেষ করে গরমের দিনের জন্য উপকারী সবজি। এতে প্রচুর পরিমাণে পানি, আঁশ ও পটাসিয়াম রয়েছে, যা দেহের ইলেকট্রোলাইটের ভারসাম্য রক্ষা করতে সাহায্য করে। তাই গরমকালে নিয়মিত ঝিঙ্গের তরকারি খাওয়া উচিত

ধুন্দল

ব্রোকলি ও ডালিমের সঙ্গে ধুন্দল মিশিয়ে সালাদ বানাতে পারেন। ধুন্দলের পুষ্টি শরীরকে পানিপূর্ণ রাখতে সাহায্য করে

চিচিঙ্গা

শরীরে তরল উৎপাদন বৃদ্ধি করে। শুষ্কভাব দূরীকরণে সহায়তা করে। হƒদরোগীদের জন্য বেশ উপকারী সবজি এটি। শারীরিক পরিশ্রমের ফলে সৃষ্ট বুকে ব্যথা দূর করতে সাহায্য করে চিচিঙ্গা পাতার রস। শরীরে শীতল প্রভাব ফেলে চিচিঙ্গা

পুদিনা

পুদিনায় শীতলীকারক উপাদান রয়েছে। এর প্রাণবন্ত সুবাস গরমের আলস্য দূর করে। পুদিনা বদহজম ও ইনফ্লামেশন দূর করতে বেশ সহায়ক। গরমে দেহকে ঠাণ্ডা রাখতে পুদিনার শরবত খেতে পারেন

মিষ্টিকুমড়ো

কুমড়োয় শীতলীকারক ও মূত্রবর্ধক উপাদান রয়েছে। হজমের সমস্যা দূর করে। অন্ত্রের ক্রিমি ধ্বংস করে। রক্তের সুগার লেভেলের ভারসাম্য রক্ষা করতে সাহায্য করে। এছাড়া এতে প্রচুর পরিমাণে পটাসিয়াম ও আঁশ রয়েছে। মিষ্টিকুমড়ো রক্তচাপ ও ত্বকের রোগ সারাতে সাহায্য করে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..