প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

শাজাহানপুরে জোড়া খুন: শ্যুটার মাসুমের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর মতিঝিল থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম টিপু ও কলেজছাত্রী সামিয়া আফরান প্রীতিকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার শ্যুটার মো. মাসুম ওরফে আকাশের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার (২৮ মার্চ) দুপুরে মাসুমকে আদালতে উপস্থিত করে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) তার বিরুদ্ধে ১৫ দিন রিমান্ড আবেদন করে। শুনানি শেষে ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেনের আদালতে শুনানি শেষে  ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে রোববার (২৭ মার্চ) মাসুমকে বগুড়া থেকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগ। গ্রেপ্তারকৃত মাসুম টিপুকে সরাসরি গুলি করে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। হত্যাকাণ্ডের পর শ্যুটুর মাসুম দেশ ত্যাগ করতে জয়পুরহাট সীমান্ত দিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার ছক করেন। সেজন্য বগুড়ার একটি হোটেলে আশ্রয় নেয় বলেও জানায় গোয়েন্দা বিভাগ।

হত্যা মামলার তদন্তে অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাইলে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি)  একেএম হাফিজ আক্তার বলেন, টিপুকে হত্যার জন্য পাঁচ দিন আগে মাসুমকে কাট আউট পদ্ধতিতে হত্যার কন্ট্রাক দেয়া হয়।

ঘটনার তিন দিন আগে কমলাপুরের ইনল্যান্ড ডিপো এলাকায় অপরিচিত এক ব্যক্তি এসে মাসুম ও তার সহযোগীকে একটি মোটরসাইকেল ও অস্ত্র দিয়ে যায়। ঘটনার আগের দিনও এজিবি কলোনিতে গিয়ে পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকায় ফিরে আসে মাসুম ও তার সহযোগী।

পরে ২৪ মার্চ ফের তারা মিশন বাস্তবায়নে যায় এবং গুলি করে টিপুকে হত্যা করে। এলোপাতাড়ি গুলিতে টিপুর গাড়িচালক মনির হোসেন এবং রিকশা আরোহী কলেজছাত্রী সামিয়া আফরান প্রীতি গুলিবিদ্ধ হন। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে জাহিদুল ও সামিয়াকে চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণা করেন।