সারা বাংলা

‘শিক্ষা প্রদানে প্রদীপ হিসেবে কাজ করছে বাউবি’

প্রতিনিধি, গাজীপুর:গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, একজন মানুষের শিক্ষা লাভের কোনো বয়স নেই, উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় তা প্রমাণ করেছে। এ বিশ্ববিদ্যালয় সব বয়সের মানুষের শিক্ষা লাভের জন্য সুবর্ণ সুযোগ সৃষ্টি করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়টি শিক্ষা প্রদানের ক্ষেত্রে প্রদীপ হিসেবে কাজ করছে। যারা বিভিন্ন কারণে নিয়মিত শিক্ষা লাভ করতে পারেননি, অথবা বয়সের কারণে শিক্ষাঙ্গন থেকে বাদ পড়েছেন, তারাই এ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা লাভের সুযোগ পাচ্ছেন। যারা বিদেশে কাজ করছেন, অথবা বিভিন্ন কারণে বিদেশে অবস্থান করছেন, তাদের জন্যও শিক্ষা লাভের সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছে উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। এটা অবশ্যই বিশ্ববিদ্যালয়ের এবং আমাদের দেশের জন্য গৌরবের।

বাংলাদেশ উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় (বাউবি) প্রতিষ্ঠার ২৭তম বার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. এম এ মাননান। এরপর উপচার্য কার্যালয়ে কেক কাটায় অংশ নেন মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, উপাচার্য প্রফেসর ড. এমএ মাননান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. খোন্দকার মোকাদ্দেস হোসেন, ট্রেজারার অধ্যাপক ড. আসফাক হোসেন, রেজিস্ট্রার ড. শফিকুল আলম, পরিচালক (তথ্য ও জনসংযোগ) আবুল কাশেম শিখদার প্রমুখ। এর আগে রঙিন বেলুন ও সাদা পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকালে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে শোভাযাত্রা বের হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের দেশব্যাপী ১২টি আঞ্চলিক কেন্দ্রসহ সব ক্যাম্পাসে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপিত হয়।

অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমএ মাননান বলেন, দেশের একমাত্র উম্মুক্ত ও দূরশিক্ষানির্ভর এ বিশ্ববিদ্যালয়টি এ বছর ২৮ বছরে পদার্পণ করছে। সারা দেশে উম্মুক্ত ও দূরশিক্ষণের মাধ্যমে শিক্ষা মহাসরণি থেকে ঝরেপড়া, সুযোগবঞ্চিত মানুষের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধির সব বয়সের সব মানুষের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান উম্মুক্তবিশ্ববিদ্যালয়। প্রতিষ্ঠার ২৭ বছরে এসে ৫৭টি আনুষ্ঠানিক অ্যাকাডেমিক প্রোগ্রাম ও ১৯টি অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা প্রোগ্রামে প্রায় ছয় লাখ শিক্ষার্থী দেশজুড়ে এক হাজার ৫৭৬টি স্টাডি সেন্টারে মাধ্যমিক থেকে পিএইচডি শিক্ষা পর্যায় পর্যন্ত শিক্ষার্থী এ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা গ্রহণ করছেন। সারা দেশে ১২টি আঞ্চলিক কেন্দ্র, ৮০টি উপ-আঞ্চলিক কেন্দ্রের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়টি তাদের শিক্ষা ও প্রশাসনিক কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তথ্যপ্রযুক্তি ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার ব্যবহারের মাধ্যমে উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার সুযোগ সবার জন্য অবারিত করেছে।

সর্বশেষ..