বিশ্ব সংবাদ

শিগগিরই এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান পাচ্ছে না আমিরাত

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চুক্তি স্বাক্ষরের পরও ছয় থেকে সাত বছরের আগে অত্যাধুনিক মার্কিন এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান কিনতে পারবে না সংযুক্ত আরব আমিরাত। ইসরাইলি সংবাদমাধ্যম জেরুজালেম পোস্টকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ইসরাইলে নিযুক্ত মার্কিন দূত ডেভিড ফ্রেইডম্যান এ তথ্য জানিয়েছেন। খবর: এএফপি।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেন, ছয় থেকে সাত বছর ধরে আমিরাত এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান কেনার চেষ্টা করে যাচ্ছে। এখন থেকে আরও ছয় বা সাত বছর লাগবে এগুলো সরবরাহ করতে। ইসরাইলি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওয়াশিংটন এখনও আমিরাতের এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেয়নি। কিন্তু ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চুক্তির পর আমিরাতের পক্ষ থেকে এ ক্রয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার ইসরাইলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গান্তজ ওয়াশিংটনে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার ও হোয়াইট হাউসের সিনিয়র উপদেষ্টা জ্যারেড কুশনারের সঙ্গে এক বৈঠক করেছেন। এতে আমিরাতের এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান কেনা নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে আলোচনা হয়। চুক্তি অনুসারে, মধ্যপ্রাচ্যে ইসরাইল ছাড়া কোনো আরব দেশের কাছে অত্যাধুনিক অস্ত্র ও যুদ্ধবিমান বিক্রি করে না যুক্তরাষ্ট্র। বর্তমানে মধ্যপ্রাচ্যে শুধু ইসরাইলের এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান রয়েছে।

ইসরাইলের সঙ্গে আরব আমিরাতের কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার হলে উপসাগরীয় আরব দেশগুলোতে যুক্তরাষ্ট্রে আরও অস্ত্র বিক্রির সুযোগ বাড়বে বলে সম্প্রতি মন্তব্য করছেন বিশেষজ্ঞরা। রেডিওতে ইসরাইলে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত ডেভিড ফ্রেইডম্যান বলেছেন, আমিরাত যত ইসরাইলের মিত্র, অংশীদার ও যুক্তরাষ্ট্রের আঞ্চলিক মিত্র হবে, আমি মনে করি এতে হুমকির মাত্রা কমবে ও যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র বিক্রিতে আমিরাত লাভবান হতে পারে।

নিয়ার ইস্ট পলিসি থিংকট্যাংকের ওয়াশিংটন ইনস্টিটিউটের আরব-ইসরাইল সম্পর্ক প্রকল্পের পরিচালক ডেভিড মাকোভস্কি বলেন, এই চুক্তিটি আমিরাতের জন্য জয়। এর ফলে আমিরাত সামরিক সরঞ্জাম কিনতে পারবে যেগুলো এখন শুধু ইসরালই কিনতে পারে। ইসরাইলের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হবে আশঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্র এগুলো বিক্রি করে না আরব দেশগুলোর কাছে।

যুক্তরাষ্ট্র ইসরাইলকে নিশ্চয়তা দিয়েছে যে, ইসরাইলের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা যাবে এমন অস্ত্র আরব বিশ্বকে তারা দেবে না। আরব দেশগুলোর তুলনায় ইসরাইল অত্যাধুনিক অস্ত্র পাবে। যেমন- লকহিড মার্টিনের তৈরি এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান যুদ্ধে ব্যবহার করেছে ইসরাইল কিন্তু আমিরাত এখনও তা কিনতে পারেনি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..