প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

শিগগিরই পেপ্যাল সেবা বাংলাদেশে চালু হবে: জুনাইদ আহমেদ পলক

শেয়ার বিজ ডেস্ক: অনলাইন মার্চেন্ট পেপ্যাল শিগগিরই বাংলাদেশে তাদের সেবা চালু করতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। গতকাল রোববার ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে এক দর্শকের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘খুব অল্প সময়ের মধ্যেই আমরা সুখবর দেব।’ খবর বিডিনিউজ।

পেইপ্যাল একটি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান, যারা ইন্টারনেটের মাধ্যমে অর্থ স্থানান্তর বা হাতবদলে সহযোগিতা করে। অনলাইনে অর্থ স্থানান্তরের এ পদ্ধতি চেক বা মানিঅর্ডারের মতো গতানুগতিক অর্থ লেনদেন পদ্ধতির বিকল্প।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ হওয়ার পর প্রায় ৪০ শতাংশ ব্যাংকিং লেনদেন হয় অনলাইনে। দেশে এখন এটিএম কার্ড আছে প্রায় এক কোটি। এখন একটাই বড় সমস্যা। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা আমাদের নির্দেশনা দিয়েছেন, যত দ্রুত সম্ভব ইন্টারন্যাশনাল পেমেন্ট গেটওয়ে সল্যুশনটা করা। এ বিষয়ে সরকার ‘আন্তরিকভাবে’ চেষ্টা করছে জানিয়ে তিনি বলেন, পেপ্যালের সহযোগী জুমের সঙ্গে সিলিকন ভ্যালিভিত্তিক আমাদের একটি কোম্পানির চুক্তি হয়েছে। বিশ্বের ৩৮টি দেশে জুমের অপারেশন আছে। আমরা সাম্প্রতিক সময়ে পেপ্যালের ভাইস প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ফলপ্রসূ মিটিং করেছি।

ইবিএলসহ সরকারি তফসিলভুক্ত চার থেকে পাঁচটি ব্যাংকে বর্তমানে ‘টেস্ট ট্রানজেকশন’ হচ্ছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘পেপ্যাল পার্টনার জুমের সঙ্গে আমরা লেনদেনে চলে যাব। খুব দ্রুতই আমরা বাংলাদেশে পেপ্যাল নিয়ে আসতে পারব।’

একটি পেপ্যাল অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য কোনো ব্যাংক অ্যাকাউন্টের ইলেকট্রনিক ডেবিট কার্ড অথবা ক্রেডিট কার্ডের প্রয়োজন পড়ে। পেইপ্যালের মাধ্যমে লেনদেনের ক্ষেত্রে গ্রহীতা পেপ্যাল কর্তৃপক্ষের কাছে চেকের জন্য আবেদন করতে পারেন, নিজের পেপ্যাল অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে খরচ করতে পারেন অথবা পেপ্যাল অ্যাকাউন্টের সঙ্গে সংযুক্ত ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অর্থ জমা করতে পারেন।

বাংলাদেশ পেপ্যালের সেবা শুরুর বিষয়ে ২০১১ সাল থেকে আলোচনা চলছে। গত বছর যুক্তরাষ্ট্র সফরে পেপ্যালের প্রধান কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠানটির ভাইস প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রতিমন্ত্রী পলক। সে সময় তিনি জানিয়েছিলেন, পেপ্যালের তালিকায় বাংলাদেশের নাম অন্তর্ভুক্ত করতে কৌশলগত দিক নিয়ে তাদের কথা হয়েছে।

চলতি বছর জুলাই মাসে রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংক জানায়, বাংলাদেশে সেবা চালু করতে পেপ্যাল তাদের সঙ্গে চুক্তিতে আসছে। আগস্ট থেকেই এ সেবা চালুর কথা সে সময় বলা হলেও তা আর হয়নি।

বর্তমানে দেশে পেজা, স্ক্রিল ও পেওনিয়ার একই ধরনের সেবা দিচ্ছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বিদেশ থেকে টাকা আনতে কোনো সমস্যা হলে তা জানাতে সবাইকে অনুরোধ করেন।

কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ মিলনায়তনে ‘ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক এ অনুষ্ঠানে ‘বাংলাদেশের ডিজিটাল উন্নয়ন, পরিবর্তন, সফলতা ও প্রতিবন্ধকতা নিয়ে একটি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন প্রতিমন্ত্রী।

কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক উইলিয়াম এইচ ড্যারেঞ্জার এবং ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডের এমডি ও সিইও আলী রেজা ইফতেখার অনুষ্ঠানে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে একটি সমঝোতা স্মারকে সই করেন।

এ সমঝোতার আওতায় কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ ও ইন্টার্নশিপের সুযোগ সৃষ্টি করা হবে। কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটির প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক জেমস গোমেজ, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের প্রধান উপদেষ্টা অধ্যাপক এমএ আরাফাতসহ অন্যরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।