প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে মানুষের চাপ 

প্রতিনিধি, মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ও বাংলাবাজার নৌরুটে ঢাকামুখী মানুষের চাপ বেড়েছে। স্পিডবোট ও লঞ্চগুলোতে যাত্রীতে পরিপূর্ণ। তবে স্বাভাবিক রয়েছে শিমুলিয়া ফেরি ঘাটে যানবাহন পারাপার। পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে শতাধিক যানবাহন।
রোববার (৮ মে) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শিমুলিয়া লঞ্চ ঘাটে ঢাকাগামী প্রায় ২০ হাজার যাত্রী পারাপার হয়েছে বলে জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ ও বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ।
যাত্রীদের বাড়তি চাপ সামাল দিতে সকাল থেকে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার, শিমুলিয়া-মাঝিকান্দি নৌরুটে ১০টি ফেরি চলাচল করছে। যাত্রী পারাপারে ১৫৫টি স্পিডবোট এবং ৮৫টি লঞ্চ চলাচল করছে। 
এদিকে, শিমুলিয়া ঘাট এলাকায় গণপরিবহণ কম থাকায় দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে বাসে উঠতে হচ্ছে ঢাকাগামী যাত্রীদের।
অতিরিক্ত ভাড়া কমানোর পাশাপাশি গণপরিবহনের সংখ্যা বাড়ানোর দাবি জানান যাত্রীরা। 
বিআইডব্লিউটিএ’র শিমুলিয়া বন্দর কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন বলেন, লঞ্চঘাট এলাকায় যাত্রীদের প্রচণ্ড চাপ রয়েছে। দুপুর পর্যন্ত প্রায় ২০ হাজারেরও বেশি যাত্রী বাংলাবাজার থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে শিমুলিয়া ঘাটে এসেছে। গতকাল শনিবার দিনে-রাতে প্রায় দেড় লাখ যাত্রী শিমুলিয়া ঘাটে পারাপার হয়েছে।
বিআইডব্লিউটিসি শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) ফয়সাল আহমেদ জানান, শিমুলিয়া ফেরিঘাটে যানবাহন পারাপার স্বাভাবিক রয়েছে। তবে বাংলাবাজার থেকে ছেড়ে আসা ফেরিতে যানবাহনের সাথে যাত্রীর বাড়তি চাপ আছে।