দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

শেয়ার কেনার চাহিদা সবচেয়ে বেশি বস্ত্র জ্বালানি ও মিউচুয়াল ফান্ডে

রুবাইয়াত রিক্তা: পুঁজিবাজারে গতকাল শেয়ার কেনার চাপে সূচক শেয়ারদর ও লেনদেনে ইতিবাচক গতি দেখা যায়। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রায় ৬৬ শতাংশ কোম্পানির দরবৃদ্ধিতে প্রধান সূচক বেড়েছে ৩১ পয়েন্ট। লেনদেন বেড়েছে প্রায় ২০০ কোটি টাকা। প্রায় সব খাতেই শেয়ার কেনার চাপ ছিল। তবে বৃহৎ খাতগুলোর মধ্যে শেয়ার কেনার চাপ সবচেয়ে বেশি ছিল বস্ত্র, জ্বালানি ও মিউচুয়াল ফান্ড খাতে। ওষুধ ও রসায়ন খাতে লেনদেন বেশি হলেও এ খাতে বিক্রির চাপও ছিল। বিমা খাতেও শেয়ার বিক্রির চাপ তুলনামূলক বেশি ছিল। ছোট খাতগুলোর মধ্যে পাট, সিমেন্ট, সিরামক, চামড়াশিল্প, ভ্রমণ ও অবকাশ খাত ভালো অবস্থানে ছিল।

২৪ শতাংশ লেনদেন হয়ে ওষুধ ও রসায়ন খাত শীর্ষে ছিল। এ খাতে ৫৬ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। স্কয়ার ফার্মার ১৬ কোটি ৭৪ লাখ টাকা লেনদেন হলেও দরপতন হয় ৪০ পয়সা। কারসাজির গুঞ্জন থাকলেও সেন্ট্রাল ফার্মার দর অব্যাহত গতিতে বেড়েই চলেছে। গতকাল ১৫ কোটি ৩১ লাখ টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে এক টাকা ৩০ পয়সা। ফার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজের ১৩ কোটি ৪৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দরপতন হয় ২০ পয়সা। ওরিয়ন ইনফিউশনের ১২ কোটি ৪৬ লাখ টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দরপতন হয় পাঁচ টাকা ২০ পয়সা। সিলভা ফার্মার ৯ কোটি ৮৩ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ৭০ পয়সা। ওরিয়ন ফার্মার ৯ কোটি ৬২ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দরপতন হয় ১০ পয়সা। এছাড়া ইন্দোবাংলা ফার্মার ৯ কোটি ২১ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দরপতন হয় ৩০ পয়সা। তবে ১০ শতাংশ বেড়ে সিলকো ফার্মা দরবৃদ্ধির শীর্ষে অবস্থান করে। বস্ত্র খাতে লেনদেন হয় ১৯ শতাংশ। এ খাতে ৮৭ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। সাড়ে ১৮ কোটি টাকা লেনদেন হয়ে শীর্ষে উঠে আসে ভিএফএস থ্রেড ডায়িং। দর বেড়েছে এক টাকা ৭০ পয়সা। এছাড়া ১০ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে অবস্থান করে নূরানী ডায়িং। শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজের দর ৯ দশমিক ৮৯ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধিতে তৃতীয়, ৯ দশমিক ৪৫ শতাংশ বেড়ে আলিফ ম্যানুফ্যাকচারিংয়ের পঞ্চম, আট দশমিক ৮২ শতাংশ বেড়ে ফারইস্ট নিটিং অ্যান্ড ডায়িং নবম এবং আট দশমিক ৭৭ শতাংশ বেড়ে ম্যাকসন্স স্পিনিং দশম অবস্থানে উঠে আসে। প্রকৌশল খাতে লেনদেন হয় ১২ শতাংশ। এ খাতে ৭২ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। মিউচুয়াল ফান্ড খাতে কোনো ফান্ড দরপতনে ছিল না। চারটির দর অপরিবর্তিত এবং বাকিগুলোর দর বেড়েছে। ৯ দশমিক ২৩ শতাংশ বেড়ে আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ড মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ান দরবৃদ্ধিতে ষষ্ঠ অবস্থানে উঠে আসে। বিমা খাতে ৪২ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে ৮৯ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। টেলিযোগাযোগ খাতের গ্রামীণফোনের ৯ কোটি ৩২ লাখ টাকা লেনদেন হলেও দরপতন হয় দুই টাকা ৯০ পয়সা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..