শেয়ার বেচবেন দুই কোম্পানির উদ্যোক্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিমা খাতের প্রতিষ্ঠান সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ও সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের উদ্যোক্তা মোহাম্মদ শফি ও রওশন আরা শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দিয়েছেন। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্সের উদ্যোক্তা মোহাম্মদ শফির হাতে থাকা কোম্পানির মোট এক লাখ ৫২ হাজার ৯১৭ শেয়ার থেকে এক লাখ শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দিয়েছেন। অন্যদিকে সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের উদ্যোক্তা রওশন আরার হাতে থাকা এক লাখ ৪৯ হাজার ৮১০ শেয়ারের সব বিক্রি করবেন, যা আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যে বর্তমান বাজারদরে সাধারণ মার্কেটে বিক্রি করতে হবে।

এদিকে সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্স ১৯৯৬ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘এ’ ক্যাটেগরিতে লেনদেন হচ্ছে। কোম্পানির ২০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১০৯ কোটি ৬৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির মোট ১০ কোটি ৯৬ লাখ ৯৮ হাজার ৬৩৩টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে ৩১ দশমিক ৫৯ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১১ দশমিক ৯৭ শতাংশ এবং বাকি ৫৬ দশমিক ৪৪ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে।

৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে এক টাকা ১৪ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৮ টাকা ১৫ পয়সা। এছাড়া এই হিসাববছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে পাঁচ টাকা ২৭ পয়সা।

অন্যদিকে সেন্টাল ইন্স্যুরেন্স ১৯৯৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘এ’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। ১০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৫৩ কোটি ১৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৬৪ কোটি ৯২ লাখ টাকা। কোম্পানিটির মোট পাঁচ কোটি ৩১ লাখ ৪৪ হাজার ৮২৩ শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে ৩৮ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ১১ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে রয়েছে ৫১ শতাংশ শেয়ার।

এদিকে সম্প্রতি চলতি হিসাববছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স। কোম্পানিটির দ্বিতীয় প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন, ২০২১) শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫৮ পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল ৩৯ পয়সা। অর্থাৎ শেয়ারপ্রতি আয় বা ইপিএস বেড়েছে ১৯ পয়সা।

সর্বশেষ..